একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : ভোটাররা কি ভাবছেন? ক্ষমতাসীনদের মধ্যে উৎসব, বিরোধীদের মধ্যে শঙ্কা!

ডিসেম্বর ৮, ২০১৮, ১১:০৫ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ৭১ বার পঠিত

আশরাফ আলী॥ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে ততই বাড়ছে নির্বাচনী উত্তাপ। এবারের নির্বাচনে ভোটার কোন প্রার্থীকে বাছাই করবেন ভবিষ্যৎ নেতা হিসেবে। সেই হিসেব নিকেশ চলছে ভোটারদের মাঝে। নির্বাচনী উত্তাপে পিছিয়ে নেই মৌলভীবাজার জেলাও। জেলার সর্বত্রই চলছে নির্বাচনী আলোচনা ভোটারদের মাঝে।

জেলার চারটি আসন থেকে কারা নির্বাচিত হবেন সেই হিসেব নিকেষ চলছে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সব জায়গাতেই। এক কথায় বলা যায় নির্বাচনী আমেজ কিছুটা হলেও জমে উঠেছে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ নির্বাচন সামনে রেখে বর্ধিত সভা, গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক সহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে জেলা জুড়ে। ক্ষমতাসীনদের মাঝে নির্বাচনী আমেজ পুরোদমে বিরাজ করছে। তারা বলছেন নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ হবে।

এদিকে নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে বিরোধী শিবিরে। তারা বলছেন এখনো নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ আসেনি। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। বিরোধীরা এখনো নির্বাচনী মাঠে নিরব।

জেলা বিএনপি’র সাধরাণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চেয়েছিলাম  নির্বাচনী মাঠে এখনো নিরব কেন জেলা বিএনপি, তিনি বলেন আমরা নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে কার্যক্রম পরিচালনা করছি। প্রতিক বরাদ্ধ হয়ে গেলে আমরা নির্বাচনী কাজ পুরোদমে শুরু করব।

ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিগত দশ বছরে বর্তমান সরকারের সাফল্য ব্যর্থতা এ হিসেব নিয়েই অনেকে ভোট দেবেন।

তবে অনেকে বলছেন, বর্তমান সরকারের আমলে শেয়ারবাজার কেলেংকারি, হলমার্ক কেলেংকারি, সোনালী ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক, ডেসটিনি, বাংলাদেশ ব্যাংকের টাকা চুরি, কয়লা খনিতে দূর্নীতি, ঘুষ বাণিজ্য, শিক্ষাখাতে ব্যাপক অনিয়ম, গুম, খুন, বিনা বিচারে হত্যা, দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি এই বিষয়গুলো সামনে আসবে ভোটের হিসেব নিকেষে।

কিন্তু অনেকের মধ্যে শঙ্কা বিরাজ করছে নির্বাচন নিয়ে। তারা বলছেন ক্ষমতাসীনদের মধ্যে শুধু উৎসব বিরাজ করছে। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন কতটুকু সুষ্ঠু হবে সেটাও বিবেচনার বিষয়। ৫ জানুয়ারী মার্কা নির্বাচনের শঙ্কা প্রকাশ করছেন অনেক ভোটার।

জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান বলেন, নির্বাচন নিরপেক্ষ, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হবে। মৌলভীবাজারে সকল সময় অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জনগণের অধিকারে হস্তক্ষেপ করার অধিকার কারো নেই।

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) মৌলভীবাজার জেলা সাধরাণ সম্পাদক জহর লাল দত্ত বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ভোটারদের মধ্যে আনন্দের কোন বাতাস লাগেনি। নির্বাচন নিয়ে সাধরাণ মানুষের মধ্যে কোন চিন্তা নেই। এমনকি তাদের মধ্যে কোন উৎসব নেই।

তিনি আরোও বলেন, জনগণের মধ্যে আশঙ্কা বিরাজ করছে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা। জনগণ বলছে বিএনপি নির্বাচনে কতটুকু টিকে থাকবে সেটা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা সেটা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে ভোটারদের মধ্যে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”