জাতীয় খেলার ধারাভাষ্যকার হতে চায় রাজনগরের নিজাম

সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮, ১১:২৩ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ৩৪৪ বার পঠিত

শংকর দুলাল দেব॥ খেলাধুলার মাধ্যমে মানুষের মনের ও শরীরের বিকাশ ঘটে। ক্রীড়ামোদি মানুষ নিজ নিজ অবস্থান থেকে সময় উপযোগী বিভিন্ন খেলাধুলা উপভোগ করে। কেউ মাঠে খেলে আবার অনেকে সেই খেলা দর্শক হয়ে উপভোগ করে। ক্রিকেট অথবা ফুটবল খেলায় খেলোয়াড়দের মাঠ কাপানো পারফরমেন্সের সাথে সাথে দর্শক-শ্রুতাদের কাছে তা উপভোগ্য ও আরও বেশি আকর্ষণীয় করে তুলতে ধারাভাষ্যকারদের ভুমিকা অন্যতম। এমনি এক তরুণ ধারাভাষ্যকার হিসেবে মৌলভীবাজার তথা জাতীয় পর্যায়ে নাম আলোকিত করার প্রত্যয়ে স্বপ্ন দেখছে নিজাম আহমদ তুষার। মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার উত্তরভাগ পানিশাইল গ্রামের প্রবাসী

আরফিজ আহমদের ছেলে নিজাম আহমদ তুষার। দুই ভাই ও তিন বোনের মধ্যে নিজাম ৩য়। বর্তমানে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী সে।

ইতোমধ্যেই মধুরকণ্ঠ দিয়ে ধারাভাষ্যের মাধ্যমে স্থান করে নিয়েছে সাধারণ মানুষের

মনে। তার স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে খেলবে। বয়স যখন তার ১৪ হবে

তখন বিকেএসপির বাছাইপর্বে সুযোগ পেয়ে যাওয়া হয়নি নিজের জন্মভূমি ছেড়ে। কিন্তু স্কুল থেকে কলেজে বিভিন্ন জায়গায় পরিচিতি বাড়তে থাকে টেপ টেনিস বলে। মৌলভীবাজার জেলার বিভিন্ন মাঠে তার তার প্রতিভা দেখিয়েছে উইকেট কিপার ও ওপেনার ব্যাটসম্যান হিসেবে। জেলার সবচেয়ে বড় আসর সিপিএমের টেপ টেনিস টুর্নামেন্টে ২ টি অর্ধশত রান রয়েছে ১৬ ও ১৭ সালে। এখন স্বপ্ন অন্য দিকে। সেই ছোট বেলা থেকেই ক্রিকেট ও ফুটবল পাগল নিজাম অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে শুনতো আতাহর আলী খান, রবি শাস্ত্রী, রমিজ রাজা, আলফাজ উদ্দীন, শামীম আশরাফ চৌধুরীসহ বিখ্যাত সব লিজেন্ডদের ধারাবিবরণী। স্বপ্ন দেখা শুরু করে ধারাভাষ্যকার হওয়ার। স্থানীয় খেলার মাঠে গিয়ে মাইক্রোফোন হাতে ধারাবিবরণী দিতে শুরু করে সাহসের সাথে। ২০১৩ সালে রাজনগরের উত্তরভাগে অনুষ্ঠিত ভাইস-চেয়ারম্যান ফুটবল টুর্নামেন্ট থেকে ধারাভাষ্য শুরু করে নিজাম। তারপর ২০১৬ সালে বিমলাচর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে একটি ফুটবল টুর্নামেন্টে ৫ হাজার দর্শকের মন জয় করে সে। গত বছর জেলার সবচেয়ে আলোড়ন সৃষ্টিকারী টুর্নামেন্ট সিপিএমে আনুষ্ঠানিকভাবে ধারাভাষ্য দেওয়ার জন্য ডাক পায় আত্মপ্রত্যয়ী নিজাম আহমদ তুষার। উক্ত খেলার ফাইনালে বাংলাদেশের টি- টুয়েন্টি স্পেশালিস্ট সাব্বির রহমান ও সাবেক জাতীয় দলের ওপেনার ব্যাটসম্যান শামসুর রহমান এসেছিলেন। সেখানে সাব্বির রহমান নিজে নিজামের ধারাভাষ্যে প্রসংশা করে বলেছিলেন,‘চমৎকার কমেন্টরি করছে সে’। সেই দিন থেকে আরো স্বপ্ন দেখা শুরু করে নিজাম। হতে চায় জাতীয় পর্যায়ের ধারাভাষ্যকার। এরই ধারাবাহিকতায় সে জেলায় অনুষ্ঠিত সিপিএম ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আসর,

স্কুল কলেজের সব ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, শ্রীমঙ্গল অনুষ্ঠিত আব্দুল শহিদ ফুটবল টুর্নামেন্ট, গেট টুগেদার ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, এন্টি ড্রাগ নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, স্বাধীনতা দিবস ফুটবল টুর্নামেন্ট, মেয়র কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট, জেলা ও জেলার বাইরে একাধিক টুর্নামেন্টে ধারাভাষ্য দেওয়ার জন্য ডাক পেয়েছে নিজাম। তাছাড়াও কুমিল্লায় শাহীনুর খালেদ ফুটবল টুর্নামেন্ট ধারাভাষ্য দিয়ে মন জয় করেছে মানুষের। ধারাভাষ্যকার হওয়ার স্বপ্নে বিভোর নিজাম আহমদ তুষার বলেন, মূলত শখ থেকেই স্বপ্ন। আরও ভাল করার জন্য বড়দের পরামর্শ নিয়ে এছাড়া পিচ রিপোর্ট, ওয়েদার রিপোর্টসহ গ্রাউন্ডের অন্যান্য বিষয় গুলোতে দক্ষতা অর্জনের জন্য নিয়মিত অনুশীলন করছি। ভাল ধারাভাষ্যের জন্য জানা প্রয়োজন। টার্গেট আন্তর্জাতিক মানের ধারাভাষ্য দেওয়া। এজন্য স্পোর্টস চ্যানেলের সামনে খেলার শুরুর ৪৫ মিনিট আগে বসে থাকি। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মিলন বখ্ধসঢ়;ত, বিশিষ্ঠ ক্রীড়া সংগঠক ওবায়দুর রহমান ডিপলু, শংকর দুলাল দেব, শাহ পাবলু ও রাসেল খান আমাকে সব সময়ই আমার কাজে উৎসাহ দেন । আমি সবার সহযোগীতা চাই। জাতীয় পর্যায়ে ধারাভাষ্য দেওয়ার জন্য আগামীতে লক্ষ্য কি জানতে চাইলে নিজাম বলে, বর্তমানে সিলেট বিভাগীয় ধারাভাষ্যকার সংস্থা ও ধারাভাষ্যকার কুমার কল্যাণ এর নেতৃত্বধীন বাংলাদেশ লকাল স্পোর্টস কমেন্টেটর এসোসিয়েশনের সাথে আছি। এখন লক্ষ্য বাংলাদেশ রেডিও তে ধারাভাষ্য দেওয়া। এছাড়াও আমাদের প্রশিক্ষণ দরকার। বাংলাদেশ স্পোর্টস কমেন্টেটরস ফোরাম এই উদ্যোগ নিতে পারে। এজন্য সংশিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নিজাম আহমদ তুষার।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”