জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ শোষক গোষ্ঠির পাতানো গতানুগতিক নির্বাচনে জনগণের মুক্তি আসবে না

ডিসেম্বর ৭, ২০১৮, ৬:৪২ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ২৬ বার পঠিত

আশরাফ আলী॥ জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এনডিএফ’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) ডাঃ এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালালদের পাতানো গতানুগতিক সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে শ্রমিক-কৃষক-জনগণের মুক্তি আসবে না। সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সফরের ২য় দিনে তিনি মৌলভীবাজার জেলা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট আয়োজিত এক কর্মীসভায় উপরোক্ত মন্তব্য করেন। সোমবার রাতে শহরের কোর্টরোডস্থ কার্যালয়ে জেলা এনডিএফ’র সহ-সভাপতি মোঃ নুরুল মোহাইমীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মীসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) ডাঃ এম জাহাঙ্গীর হোসেন আরও বলেন বাংলাদেশ একটি নয়া-উপনিবেশিক আধা-সামন্ততান্ত্রিক দেশ। এখানে ক্রিয়াশীল রয়েছে স্বৈরান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা। তাই নির্বাচনের মাধম্যে জনগণের ভোটে সরকার গঠন হয় না। এদেশে নির্বাচন ও সরকার গঠন হয় কার্যত প্রভূ শ্রেণীদের পরিকল্পনায়। তাই প্রতিক্রিয়াশীল সকল দলই ক্ষমতায় থাকা ও আসার জন্য প্রভূদের আশীর্বাদের মুখাপেক্ষী থাকে। এজন্য মহাজোট সরকার মার্কিনসহ সাম্রাজ্যবাদীদের সাথে জাতীয় স্বার্থবিরোধী চুক্তি ও তা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় অগ্রসর হচ্ছে। বিএনপির নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্ট প্রতিক্রিয়াশীল বিরোধী দলসমূহ এবং বামনাধী সুবিধাবাদী সংশোধনবাদীরা এ নির্বাচনে তাদের স্বার্থ হাসিলেও নানামূখী তৎপরতা চালাচ্ছে। এর ফলে জাতীয় রাজনৈতিক অঙ্গন ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে কি পরিস্থিতি দাঁড়াবে, কে ক্ষমতায় আসবে-তা নিয়ে জনগণের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা-আতঙ্ক বেড়ে চলছে। নয়া-উপনিবেশিক আধা-সামন্ততান্ত্রিক দেশগুলোতে সাম্রাজ্যবাদী পরিকল্পনায় সরকার গঠনে শ্রমিক-কৃষক-জনগণের কোন লাভ হয় না। কেবল সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমেই আসবে শ্রমিক-কৃষক-জনগণের কাঙ্খিত মুক্তি। জেলা এনডিএফ’র সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কর্মীসভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ ছাদেক মিয়া, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ জেলা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ মোস্তফা কামাল, ধ্রুবতারা সাংস্কৃতিক সংসদ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমলেশ শর্ম্মা, মৌলভীবাজার জেলা রিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্টঃ ২৪৫৩ এর সভাপতি মোঃ সোহেল মিয়া, হবিগঞ্জ জেলা হোটেল রেস্টুরেন্ট মিস্টি বেকারী শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্টঃ ২৮৬৮ এর সভাপতি মোঃ কাওছার খান, মৌলভীবাজার জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্টঃ-২৩০৫ এর কোষাধ্যক্ষ তারেশ বিশ্বাস সুমন, হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন শেরপুর আঞ্চলিক কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ইকবাল হোসেন, চা-শ্রমিক সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির নেতা নারায়ন গোড়াইত, রিকশা শ্রমিকনেতা মোঃ জসিমউদ্দিন ও কিসমত মিয়া, হোটেল শ্রমিকনেতা মোঃ জামাল মিয়া প্রমূখ। সভা থেকে জাতীয় ও জনস্বার্থ বিরোধী সকল চুক্তি বাতিল, ভারতের মূল ভূখন্ডের সাথে উত্তর-পূর্ব ভারতের সকল রূপের যোগাযোগ স্থাপনের জন্য সাম্রাজ্যবাদের দালাল ভারতকে সড়ক, রেল, নৌ, বিদ্যুৎ ইত্যাদি করিডোর প্রদান চুক্তি বাতিল, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ সকল কালাকানুন বাতিল, বিনাবিচারে হত্যা-খুন-গুম বন্ধ, দফায় দফায় গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারা, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি রোধ, শ্রমিক-কর্মচারিদের জন্য বাজারদরের সাথে সংগতি রেখে ন্যূনতম মূল মজুরি ২০ হাজার টাকা নির্ধারণ ও শ্রমিকস্বার্থ বিরোধী সংশোধিত শ্রমআইন বাতিল করে গণতান্ত্রিক শ্রমআইন প্রণয়ন, ভূমিহীন দরিদ্র কৃষকের হাতে জমি ও কাজ, কৃষি উৎপাদনের খরচ কমানো এবং ফসলের ন্যায্যমূল্য, সার, ডিজেল. কীটনাশকের দাম কমানোর দাবিতে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”