জুড়ীতে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে  বৈষম্যের অভিযোগ : প্রতিবাদে মানববন্ধন

এপ্রিল ১, ২০১৮, ১১:০৫ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১৩৭ বার পঠিত

বড়লেখা প্রতিনিধি॥ জুড়ীতে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে পরীক্ষার্থীদের সাথে বৈষম্যের অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা ১ এপ্রিল রোববার জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজ গেটে মানববন্ধন করেছে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী হোসাইন মোহাম্মদ শাহাজাহানের লিখিত বক্তব্য সুত্রে জানা গেছে, জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনটির বেশি বিষয়ে অকৃতকার্য কাউকে ২০১৮ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে না। কিন্তু শেষ সময়ে দেখা গেছে ৪-৫-৬ বিষয়ে অকৃতকার্য এমনকি নির্বাচনী পরীক্ষাও দেয়নি এমনসহ প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দেয়া হয়েছে। বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা জানান, কলেজ কর্তৃপক্ষ অশুভ শক্তির প্রভাবে এবং টাকার বিনিময়ে ভূয়া মেডিকেল সার্টিফিকেটের দোহাই দিয়ে ওদের পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দেন। অথচ আমাদের বৈধ মেডিকেল সার্টিফিকেট এবং যথেষ্ট যৌক্তিকতা থাকার পরেও সম্পূর্ণ রাজনৈতিক হিংসাত্ত্বক মনোভাবে আমাদের মত ৪/৫ বিষয়ে অকৃতকার্যদের পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দেয়া হয়নি। মানববন্ধন সমাবেশে কিবরিয়া ইসলাম ইমন, হুমায়ূন রমীদ, সিদ্দিকুর রহমান কয়েস, সাগর কান্তি দাস, নাইম আহমেদ, মুজিবুর রহমান, সাইফুল ইসলাম, মিঠুন দাস, তানজিল আহমদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিষয়ে জুড়ী তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ অরুন চন্দ্র দাস ৪-৫-৬ বিষয়ে অকৃতকার্যদের পরীক্ষায় সুযোগ দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, কিছু স্টুডেন্টের মেডিকেল সার্টিফিকেট যাছাইপুর্বক বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে পরীক্ষায় অংশগ্রহনের সুযোগ দেয়া হয়েছে। কোন ছাত্রের সাথে তিনি কোন ধরণের বৈষম্য করেননি।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”