নিখোঁজের সাড়ে ৪ ঘন্টা পর কমলগঞ্জে চা শ্রমিক কন্যার লাশ উদ্ধার

মার্চ ১৩, ২০১৮, ৬:৩৯ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১৮১ বার পঠিত

প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ॥ কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের নন্দরানী চা বাগানের চা শ্রমিক মালচী অলমিকের কন্যা মনি অলমিক (১৭) সোমবার সকাল ১০টায় বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের  সাড়ে ৪ ঘন্টা পর একই চা বাগানের একটি প্লান্টেশন এলাকায় গলায় ওড়না পেছানো অবস্থায় তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে চা শ্রমিকরা। পরে রাত ৮টায় কমলগঞ্জ থানার পুলিশ মনি অলমিকের লাশ উদ্ধার করে মঙ্গলবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

১২ মার্চ সোমবার রাতে সুরতহাল তৈরী করে লাশ উদ্ধারের পর নিহতের বাবা চা শ্রমিক মানচী অলমিক বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাতনানা কয়েকজনকে আসামী করা হয়েছে।

মনি অলমিকের বড় ভাই উজ্জল অলমিক (২৭) ১৩ মার্চ  মঙ্গলবার জানান, সোমবার সকাল ১০টায় তার বোন বাড়ি থেকে বের হলে আর ফিরে আসেনি। তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করে পাওয়া যায়নি। তবে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চা শ্রমিকরা এ চা বাগানের (নন্দরানী চা বাগানের) একটি প্লান্টেশন এলাকায় ওড়না গলায় পেছানো অবস্থায় তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। সন্ধ্যার পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে।

কমলগঞ্জ থানার ওসি মো: মোক্তাদির হোসেন পিপিএম এ নন্দরানী চা বাগানের প্লান্টেশন এলাকা থেকে নিখোঁজ চা শ্রমিক কন্যার লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গলায় কোন দাগ ছিল না। তবে তার কপালে ও পেটে সামান্য দাগ ছিল। থানায় হত্যা মামলা হওয়ার কথা নিশ্চিত করে ওসি মো: মোক্তাদির হোসেন আরও বলেন, আসলে এই চা শ্রমিক কন্যার কিভাবে মৃত্যু হলো এখনও বোঝা যাচ্ছে না। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পেলে ও তদন্তক্রমে প্রকৃত সত্য বের হয়ে যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”