পরিবহন ধর্মঘটে কমলগঞ্জে জনদুর্ভোগে অতিষ্ঠ মানুষ

জানুয়ারী ৭, ২০১৭, ৯:৫১ অপরাহ্ণ

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥ ৫ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার বিকালে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যকার সংঘর্ষের জের ধরে বিজিবি’র যানবাহন ও দোকানপাটে হামলা ও গুলিতে ৮ জন গুলিবিদ্ধ ও অর্ধশত মানুষ আহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার সারা জেলায় চলা ধর্মঘটে কমলগঞ্জ উপজেলা অচল হয়ে পড়ে। পরিবহন ধর্মঘটে অনার্স পরীক্ষার্থী ছাড়াও জন দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। পরিবহন শ্রমিকরা লাঠি হাতে নিয়ে ধর্মঘটের সমর্থনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দখল করে সেখানে অবস্থান গ্রহণ করে।
শ্রীমঙ্গলে বিজিবি ও পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষে পরবর্তীতে বিজিবি’র হামলায় শ্রীমঙ্গল শহরের বেশ কয়েকটি দোকান ও যানবাহন ভাঙ্গচুর হয়। পরবর্তীতে পরিবহন শ্রমিকরা মারমুখী হয়ে উঠলে বিজিবি কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এ সময়ে অন্তত ৮ জন গুলিবিদ্ধ ও অর্ধশত লোক আহত হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে ৬ জানুয়ারী শুক্রবার সারাদিন শ্রীমঙ্গল শহরে ধর্মঘট পালিত হয়। পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের ডাকে শনিবার ভোর থেকে মৌলভীবাজার জেলাব্যাপী ধর্মঘট শুরু হয়। শনিবার ভোর থেকে কমলগঞ্জ উপজেলার কোথাও কোন প্রকার যানবাহন চলেনি। এমনকি রিক্সা পর্যন্ত চলাচল করেনি। অধিকাংশ দোকানপাঠও বন্ধ ছিল।
কমলগঞ্জের সড়কগুলোতে অবস্থানরত পরিবহন শ্রমিকরা লাঠি হাতে নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এমনকি দূর দূরান্ত থেকে আকস্মিকভাবে আগত কোন ব্যক্তিগত যান সড়কে এসে গেলে বিক্ষোব্দ পরিবহন শ্রমিকরা সেটিকে আটকিয়ে রাখে। রোগী বা জরুরী অবস্থা বিবেচনা করে কিছু গাড়ি ছেড়ে দেয়।

মন্তব্য করুন