বর্তমান সরকার মেঘা দুর্নীতি করছে-সুলতান মনসুর

ডিসেম্বর ৮, ২০১৮, ১০:৪৯ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১৪২ বার পঠিত

কুলাউড়া প্রতিনিধি॥ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা, সাবেক এমপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ বলেছেন- বাংলাদেশে মেঘা প্রকল্পের নামে মেঘা দুর্নীতি করছে সরকার। বাংলাদেশে মেঘা প্রকল্প যতটুকু নেওয়া হয়েছে পৃথিবীর ইতিহাসে এমন কোন জায়গা নেই তিন গুন, চার গুন বেশি অর্থ দিয়ে এসব প্রকল্প হচ্ছে। এসব প্রকল্পের নামে সরকার মেঘা দুর্নীতি করছে। বর্তমানের আওয়ামী লীগ, সরকারলীগে পরিণত হয়েছে। দেশে এখন গণতন্ত্র আইনের শাসন বাকস্বাধীনতা নেই বললেই চলে। জনগণের অধিকার আজ ভূ-লুন্ঠিত।

শনিবার ৮ ডিসেম্বর বিকেলে কুলাউড়া শহরের বাসায় কর্মরত সংবাদকর্মীদের সাথে মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনের  জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী সুলতান মোহাম্মদ মনসুর সৌজন্য সাক্ষাৎ এসব কথা বলেন।

ঐক্যফ্রন্ট শীর্ষ এ নেতা বলেন- ‘ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে নানাভাবে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে। অথচ মাত্র দুই কোটি টাকার কারণে খালেদা জিয়াকে চক্রান্ত করে কারাবন্দী করে রাখা হয়েছে। যেখানে কারাগার নাই, একটি পরিত্যক্ত ঘরে তাকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। হলমার্ক, জনতা ব্যাংক, ডেসটিনিসহ এমন কোন ব্যাংক নেই যেখানে অর্থ আত্মসাৎ হয়নি। সে সবের বিচার হয়নি।’

দেশে একটি গোষ্ঠী বা ব্যক্তির শাসন চলছে জানিয়ে সুলতান মনসুর বলেন-‘দেশে এখন গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও বাকস্বাধীনতা নেই। বিরোধী মত ও পথের কোন মানুষই আজ নিরাপদে নেই। গত ২২ সেপ্টেম্বরে আমাদের জাতীয় ঐক্যের ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপি, গণফোরাম, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, জেএসডিসহ ২০ দলীয় জোট একত্র হয়েছে মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়ার আন্দোলনে। ৭ দফা ও ১১ দাবি নিয়ে আমাদের জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যাত্রা।’

সুলতান মনসুর ১২ বছরের আক্ষেপ তুলে ধরে বলেন-‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বা অন্যান্য নেতৃবৃন্দ যেমন তাজউদ্দিন, মুজিবনগর সরকারসহ জেনারেল আতাউল গনি ওসমানীর নেতৃত্বে¡ সেক্টর কমান্ডাররা ছিলেন জেনারেল জিয়াউর রহমান, জেনারেল শফিউল্লাহ, জেনারেল খান মোশাররফ তিন ব্রিগেড ছিলেন বা হাজার হাজার সামরিক বাহিনী, মুজিব বাহিনীর সদস্যরা ছিলেন তারা কিন্তু লুটপাটের বা টাকা আত্মসাতের জন্য, দেশ ধ্বংস করার জন্য এই বাংলাদেশকে স্বাধীন করেন নাই।’

মুক্তিযোদ্ধা বিরোধী শক্তির (জামায়ত) সাথে ঐক্য করা হয়েছে এমন প্রশ্নের উত্তরে সুলতান মনসুর বলেন-‘বাংলাদেশের কোন ভোটার স্বাধীনতা বিরোধী নয়, মুক্তিযোদ্ধা চেতনা বিরোধী হতে পারে, স্বাধীনতা বিরোধী নয়।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সাবেক তিনবারের সাংসদ ও জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) দলের অন্যতম নেতা এড. নওয়াব আলী আব্বাছ খান, মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি এড. এ এনএম আবেদ রাজা।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”