বাঁশের বাজার ও বেতের তৈরি আসবাবপত্রে নজড় কেড়েছে রাজনগরের কালারবাজার 

ডিসেম্বর ৪, ২০১৮, ১:১৫ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৩৬৪ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার জেলার রাজনগরের কালারবাজারে পাইকারী বাঁশ বিক্রিসহ শত বছরের পুরানো বেতের তৈরি বিভিন্ন আসবাবপত্রে ক্রেতাদের নজড় কেড়েছে। কুশিয়ারা নদী পাড়ে অবস্থিত এ বাজারে দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে উজানের বিভিন্ন পাহাড় থেকে নদী পথে আসা বাঁশ পাইকারী দরে কিনে বিভিন্ন আসবাবপত্র তৈরী করে থাকেন।

জানা গেছে, পাশ্ববর্তী বালাগঞ্জ ও কালিগঞ্জ বাজার থেকে আসা পাইকারেরা বাঁশ, বাঁশ বেতের তৈরি, টুকরি,খলই, দুছইন, হুপা, লাঙ্গল,জোয়াল,বেতের পাটিসহ নানা উপকরণ ক্রয় করে তাদের বাজারে খুচরা দরে বিক্রি করে। প্রতি শুক্র ও সোমবার বসা হাটে উপজেলার উত্তরভাগ, ফতেপুর, মুন্সিবাজার ও সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার গৌরি পুর ও বালাগঞ্জ সদর থেকে শত শত ক্রেতা-বিক্রেতা এসে জড়ো হন।

উত্তরভাগ ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের বেতের তৈরি আসবাবপত্র কারিগর মহেন্দ্র সরকার (৬৫) জানান, ৪০ বছর ধরে বাজারে তিনি বেতের তিরি আসবাবপত্র বিক্রি করে আসছেন। তিনি দুই হাটে ২-৩ হাজার টাকা বিক্রি করেন। তিনি টুকরি ৫০-৬০,কুলা ১৫০ ও খলই ৬০ টাকায় বিক্রি করেন। তার সাথে বাজারে বিক্রি করেন একই গ্রামের রতেন্দ্র সরকার,কুলেন্দ্র সরকার,উত্তরভাগ গ্রামের সজল সরকার, ইরেশ সরকার ও আমনপুর গ্রামের অরূপ বিশ্বাস।

অরূপ বিশ্বাস জানান, তার ফিসি (ফুফু) সুর্মিতা বিশ্বাস এসব বাঁশ দিয়ে বিভিন্ন উপকরণ তৈরি করেন। একসময় এই বাজারের নদী পাড়ে বিশাল ধানের হাট বসতো। এসময় পাশের গ্রামগুলো থেকে নদী পথে ছোট ছোট নৌকা ও সড়ক পথে ঘোড়া দিয়ে বস্তা ভর্তি ধান নিয়ে আসতো কৃষকেরা। পরবর্তীতে ক্রমাগত বাজারের এক পাশ্ব নদী গর্ভে বিলীন হওয়াতে ধান বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”