বড়লেখায় অভিনব কায়দায় প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিল বৃদ্ধার ৮৯ হাজার টাকা

নভেম্বর ৮, ২০১৭, ৭:৪৫ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১২৩ বার পঠিত

আব্দুর রব॥ বড়লেখায় সঙ্গবদ্ধ প্রতারক চক্র অভিনব কায়দায় ফ্রান্স প্রবাসীর বৃদ্ধা মায়ের ৮৯ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।
বুধবার ৮ নভেম্বর দুপুর বেলা পৌরশহরের একটি বে-সরকারী ব্যাংকে প্রতারণার ঘটনাটি ঘটেছে। বিকেলে প্রতারিত মহিলার অভিযোগে থানার উপ-পরিদর্শক শরীফ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
ভুক্তভোগী মহিলা ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, বুধবার এনসিসি ব্যাংক বড়লেখা শাখা থেকে বৃদ্ধ ফরিদা বেগম (৭৫) পিন নম্বরে ছেলের প্রেরিত ১ লাখ ৯২ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। এদিকে টাকা তুলে ব্যাংকের একটি সোফায় বসে ৯২ হাজার টাকা হাত ব্যাগে ভরে রাখেন। বাকি ৫০০ টাকার নোটের দুটি বান্ডিলের ১ লাখ টাকা গুনছিলেন। এ সময় অজ্ঞাত ব্যক্তি তার পাশে বসে। অপর অজ্ঞাত ব্যক্তি ফরিদা বেগমকে টাকা গুনে দেবার কথা বলে। টাকা গুনে একপর্যায়ে বলে তাদের কাছে ১ হাজার টাকার নোটের ১ লাখ টাকার বান্ডিল রয়েছে। তিনি চাইলে এটা তাকে দিতে পারেন। ফরিদা বেগম সম্মত হলে ৫০০ টাকার দুটি বান্ডিল নিয়ে তাকে ১ হাজার টাকার নোটের ১ লাখ টাকার বান্ডিল দেন। ফরিদা বেগম টাকা গুনে দেখেন এতে ৯৫ হাজার টাকা। এ কথা বলার পর ওই ব্যক্তি ১০০ টাকার ৫০টি নোট দিয়ে ১ লাখ টাকা পুরণ করে দেন। এ বান্ডিলটি গুছিয়ে দেয়ার কথা বলে মুহুর্তে অজ্ঞাত ব্যক্তি বান্ডিল বদলে ফেলে। পরে ফরিদা বেগম গুনে বান্ডিলে ১০০ টাকার নোট ভরা মাত্র ১১ হাজার টাকা পান। ৮৯ হাজার টাকাই হাতিয়ে প্রতারক দল চম্পট দেয়।
ব্যাংক ম্যানেজার অজয় কুমার দত্ত জানান, ‘বয়স্ক মহিলা। টাকা তোলার পর সোফায় বসে গুনছিলেন। আমরা সিসি টিভির ফুটেজ দেখেছি, লোকটি এমনভাবে টাকা গুনছে। সন্দেহ করার উপায় নেই। টাকা গোনার পর আস্তে আস্তে লোকটি ব্যাংক থেকে বেরিয়ে গেছে। প্রতারকরদের খুজে বের করার ব্যাপারে ভুক্তভোগি মহিলাকে ব্যাংক সব ধরনের সহযোগিতা করবে।
ওসি মুহাম্মদ সহিদুর রহমান বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় জানান, প্রতারণার শিকার বৃদ্ধ ফরিদা বেগম থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন