বড়লেখায় আনসারদের নির্বাচনী ডিউটি প্রদানে উৎকোচ আদায়

মার্চ ১০, ২০১৯, ১২:২২ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ২৩ বার পঠিত

বড়লেখা প্রতিনিধি॥ বড়লেখায় আনসার ভিডিপি সদস্যদের নির্বাচনী ডিউটিতে অর্ন্তভুক্ত করতে উৎকোচ আদায় করছেন উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসের মহিলা প্রশিক্ষিকা সীতা রানী দত্ত। উৎকোচ প্রদানে ব্যর্থ আনসারদের তিনি নির্বাচনী তালিকা থেকে কেটে ফেলছেন। এব্যাপারে ভুক্তভোগী আনসাররা ইউএনও বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জানা গেছে, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বড়লেখায় ৬১টি ভোট কেন্দ্রের প্রতিটিতে ১২ জন করে মোট ৭৩২ জন আনসার ভিডিপি নারী-পুরুষ সদস্য নিয়োগ দেয়ার কথা রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসের মহিলা প্রশিক্ষিকা শিতা রানী দত্ত উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের দলনেতা ও দলনেত্রীর মাধ্যমে আনসার ভিডিপি সদস্য প্রতি ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা আদায় করে আনসারদের নামের তালিকা গ্রহণ করছেন। যারা উৎকোচ প্রদানে ব্যর্থ হন, নানা অজুহাত দেখিয়ে তাদেরকে ডিউটি থেকে বাদ দেন।  প্রশিক্ষিত আনসার পিসি রহমত আলী, এপিসি আনোয়ার আলী, আনসার সদস্য মস্তকিন আলী, ইসমত আলী, সিকন্দর আলী, নুরুজ আলী প্রমূখ অভিযোগ করেন বছরের পর বছর ধরে টিআই সীতা রানী দত্ত বিভিন্ন নির্বাচন ও দূর্গা পুজার ডিউটি প্রদানে আনসার সদস্যদের নিকট থেকে উৎকোচ আদায় করেন। যারা প্রতিবাদ করেন তাদেরকে তালিকা থেকে কেটে দেন। এছাড়াও তিনি প্রতিটি নির্বাচন ও দূর্গা পুজায় আনসারদের ডিউটি জালিয়াতির মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১২ জনের আনসারের দলপ্রতি টিম লিডারের মাধ্যমে ৪ হাজার থেকে ৬ হাজার টাকা অগ্রিম আদায় করছেন।

অভিযোগের ব্যাপারে উপজেলা আনসার ভিডিপি মহিলা প্রশিক্ষিকা (টিআই) সীতা রানী দত্ত জানান, তিনি কোন টাকা আদায় করেননি। সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী কিছু পিসি ও এপিসিকে নির্বাচনী ডিউটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। ওরাই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছেন।

ইউএনও মো. সুহেল মাহমুদ জানান, অভিযুক্ত ও অভিযোগকারীদের তার দফতরে ডেকেছেন। তদন্তে প্রমাণ পেলে বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা নিবেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”