বড়লেখায় বন্দোবস্তকৃত কৃষি জমি বিক্রি বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণের অভিযোগ

এপ্রিল ১২, ২০১৮, ৯:৫৭ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১০৩ বার পঠিত

বড়লেখা প্রতিনিধি বড়লেখায় আইন কানুৃনের তোয়াক্কা না করে স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় হস্তান্তর অযোগ্য বন্দোবস্তকৃত কৃষি জমি বিক্রি, তাতে বাড়ি ও সুউচ্চ সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নির্দেশে পুলিশ সরেজমিন তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার কাঠালতলী বাজার সংলগ্ন এলাকায় রসময় দেব নাথ নামে ভুমিহীন ব্যক্তিকে সরকারী খাস ১৯ শতাংশ কৃষি জমি বন্দোবস্ত দেয় উপজেলা ভুমি প্রশাসন। খাস ভুমি গ্রহিতা রসময় দেবনাথ মারা গেলে তার পুত্র রনজিৎ দেবনাথ, ধনঞ্জয় দেবনাথ, কন্যা রীনা রানী দেবনাথ ও বীনা রানী দেবনাথ উক্ত ভুমি নিয়ম বহির্ভুতভাবে জনৈক খালেদা বেগম লাইলির নিকট বিক্রি করেন। লাইলী বেগম সম্প্রতি উক্ত কৃষি জমি ভরাট করে বাড়ি ঘর তৈরী ও সুউচ্চ সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেন।

শর্ত ভঙ্গ করে সরকারী খাস জমির শ্রেণী পরিবর্তন ও বিক্রি করায় ২৭ ডিসেম্বর ভুমিহীন রসময় দেবনাথের নামে বরাদ্দকুত বন্দোবস্ত প্রস্তার বাতিলের জন্য কাঠালতলী গ্রামের আজমিল আলীর ছেলে ফয়জুল ইসলাম নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বরাবরে লিখিত অভিযোগ করলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ সুহেল মাহমুদ ১৩ মার্চ ঘটনাটি তদন্তের জন্য থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

ওসি মুহাম্মদ সহিদুর রহমান জানান, আদালতের নির্দেশ পেয়ে তিনি সরেজমিন তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন ২৮ মার্চ তিনি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জমা দিয়েছেন।

খালেদা আক্তার লাইলি জানান, তিনি কোন খাস কৃষি জমি ক্রয় করেননি। বন্দোবস্ত গ্রহিতা প্রয়াত রসময় দেবনাথের ছেলে-মেয়েরা বন্দোবস্তীয় ভুমিতে বাড়িঘর তৈরীর জন্য মাটি ভরাট ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করছে। এ অভিযোগে অযথা তাকে বিবাদী করা হয়েছে।        

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”