(ভিডিও সহ) খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নেতাকর্মীর উপর অব্যাহত মিথ্যা মামলা বন্ধের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

মার্চ ১৩, ২০১৮, ৬:৪০ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ২০২ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার॥ বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও দলীয় নেতাকর্মীদের উপর অব্যাহত মিথ্যা মামলা বন্ধের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন জেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-২ আসনে চারদলীয় জোট প্রার্থী এ্যাডভোকেট আবেদ রাজা।

১৩ মার্চ বিকেলে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের হল রুমে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এ্যাডভোকেট আবেদ রাজা বলেন, দেশনেত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা বানোয়াট মামলায় ৩৩ দিন কারাগারের নাম করে একটি পরিত্যাক্ত ভবনে অস্বাস্থ্যকর ভর্য়াত পরিবেশে রাখা হয়েছে।  রায়ের পরপরই আপিলের মাধ্যমে দ্রুত সময়ে যেখানে স্বাভাবিক ভাবে জামিন পাওয়ার কথা সেখানে ৩২ দিনের মাথায় জামিন প্রাপ্তি উচ্চ আদালতে স্বাভাবিক নীতির পরিপন্থি। সরকারের মর্জিতে ৭৩ বছর বয়সী ‘মাদার অব ডেমক্রেসী’ বেগম খালেদা জিয়াকে একের পর এক মিথ্যা মামলায় স্যোনএ্যারেষ্ট দেখিয়ে  নানা কুট কৌশলে তাঁর কারাবাস আরো দীর্ঘায়িত করার চেষ্ঠা চালাচ্ছে। তাঁর কারা মুক্তি বিলম্ব করে বর্তমান অবৈধ সরকার দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান বিহীন একটি পাতানো একদলীয় নির্বাচন করতে চায়। তাদের  এমন ষড়যন্ত্র  জনগণ পরাস্ত করে এই অবৈধ সরকারকে আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত করবে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান তার নির্বাচনী এলাকা কুলাউড়ায় বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচীতে পুলিশ অকারনে বাধা দিচ্ছে। কুলাউড়ায় বর্তমান সময়ে ৪টি মিথ্যামামলা দিয়েছে। ১৩ ফেব্রুয়ারি কুলাউড়া হাসপাতালে তার অনশন চলাকালে তাকে ২নং আসামী করে ৫১জন নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরো ১০০/১৫০ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা  করা হয়েছে। মহামান্য হাই কোর্ট থেকে এই মামলার  ৪৭ জনের আগাম জামিন নিয়েছেন। এখনো মৌলভীবাজার কারাগারে আটক রয়েছেন কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএমজিদ,বিএনপি নেতা জামাল আহমদ, ছাত্রদল নেতা তানজিল হাসান খান। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন নানাভাবে দমন নিপিড়ন ও জেল জুলুমের মাধ্যমে সরকার দেশে গণতান্ত্রিক ধারাকে ধমিয়ে রাখতে চায়। সম্প্রতি ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সহসভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে ৮মার্চ ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামন থেকে তিনিসহ অনান্য নেতাকর্মীর সাথে ধস্তাধস্তি করে তাকে তুলে নিয়ে যায়। শাহবাগ থানায় নিয়ে রিমান্ডে অমানবিক নির্যাতন করে কারাগারে প্রেরণ করে। পরে কারাগারেই তার মৃত্যু হয়। দেশে আইনের শাসন যে নেই এরকম অনেক ঘটনা তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ। সংবাদ সম্মেলনে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নেতাকর্মীদের উপর অব্যাহত মিথ্যা মামলা বন্ধের জোর দাবী জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র  কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ,জেলা বিএনপির সদস্য  বদরুজ্জামান সজল, কুলাউড়া পৌর বিএনপির সভাপতি খন্দকার মুহিবুর রহমান (মলাই), পৌর বিএনপির সভাপতি শামীম আহমদ চৌধুরী,সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল আলম সোহেল, কুলাউড়া উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর হোসেন ভূইয়া, যুবদল নেতা আজমল আলী শামীমসহ বিএনপি,যুবদল,ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবকদল,তাঁতীদল,শ্রমিকদলের নেতৃবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”