রাজনগরে দিন-দুপুরে বাসায় দুর্ধর্ষ চুরি, রাতেই মালামাল উদ্ধার

জুলাই ৪, ২০১৮, ১০:২৫ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ৯৯২ বার পঠিত

আউয়াল কালাম বেগ॥ মৌলভীবাজারের রাজনগরে এক ব্যাংক কর্মকর্তার বাসায় দিন-দুপুরে বাসায় দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরেরা ৩ ভড়ি স্বর্ণ, ১০ ভড়ি রোপার অলঙ্কার ও নগদ সাড়ে ৫ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। ওই ব্যাংক কর্মকর্তা বাদী হয়ে রাজনগর থানায় মামলা (নং-০৫, তাং-৩/৭/২০১৮) করেছেন। এ ঘটনায় জড়িত এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ২ হাজার ৫’শ টাকা সহ কিছু অলঙ্কার উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 রাজনগর থানা পুলিশ জানায়, রাজনগর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন এমএ সামাদ এপার্টমেন্টের দ্বিতীয় তলায় ভাড়াটিয়া হিসেবে সোনালী ব্যাংকের কুলাউড়া উপজেলার ফুলতলা বাজার শাখার ম্যানেজার মহসীন আলম পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। তাদের ঘরের কাজে সহযোগিতার জন্য উপজেলার উত্তর ঘরগাঁও গ্রামের আব্দুল মালিকের স্ত্রী রেলী বেগম মাঝে মাঝে বাসায় আসতেন।

৩ জুলাই মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে রেলী বেগম বাসায় এলে তাকে কক্ষে রেখে মহসীন আলমের স্ত্রী রেশমা বেগম বাথরুমে গোসল করতে যান। গোসল শেষ করে তিনি কক্ষে এসে আলমারী খোলা ও কাপড় মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে দেখতে পান। আলমারীতে রক্ষিত স্বর্ণ ও টাকাও নেই পরে তিনি রেলী বেগমকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে মোবাইল ফোনে তার স্বামীকে বিষয়টি জানান। মহসীন আলম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রাজনগর থানার ওসিকে জানালে তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রেলীকে তার বাড়ি থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ১০ ভরি রোপা ও ২ আনা ওজনের স্বর্ণের একটি আংটি সহ ২ হাজার ৫’শ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। বাকী অলঙ্কার তার ছেলে মাছুম মিয়া বিক্রি করে দিয়েছে বলে আটক রেলী বেগম পুলিশকে জানায়। এ ঘটনায় সোনালী ব্যাংকের ওই কর্মকর্তা বাদী হয়ে রাজনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ আটক রেলী বেগমকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

রাজনগর থানার ওসি শ্যামল বণিক জানান, চুরি যাওয়া কিছু অলঙ্কার ও টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। চোর রেলী বেগমকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীকে আটকের চেষ্টা চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”