রাস্তার কারনে ভোগান্তীতে গ্রামবাসী

জুন ৯, ২০১৮, ৯:১৮ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ৩৭ বার পঠিত

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ শ্রীমঙ্গল উপজেলার ২নং ভুনবীর  ইউনিয়নের আঐ গ্রামের রাস্তটির বেহাল অবস্থা ও চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই রাস্তাটির বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি সংস্কার না করায় এলাকার জনসাধারণ ও গাড়ি চলাচলে ব্যাপক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে বলে এলাকার সাধারণ মানুষ জানিয়েছে।

সামান্য বৃষ্টি হলেই প্রচন্ড জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় সড়কটিতে। এরই মধ্যে ইট ভেঙে ছোটখাট কুয়ায় পরিণত হয়েছে সড়কটির বেশ কয়েকটি অংশ। ফলে এর বেশ কিছু অংশই এখন চলাচলের উপযোগী নয়। সড়কটি এখন যেন মরণফাঁদ। রাস্তার অনেক জায়গায় ইট সলিং উঠে গিয়ে ছোট-খাটো গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহনগুলোকে চলতে হচ্ছে হেলেদুলে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১০ সালে নির্মিত এই রাস্তাটি দিয়ে মিনি ট্রাক, পিকআপ, সিএনজি, অটোরিক্সাসহ বিভিন্ন ধরনের শতাধিক যানবাহন নিয়ে প্রতিদিন প্রায় পাঁচ শতাধিক স্কুল কলেজে পড়য়া শিক্ষার্থীসহ হাজার হাজার লোকজন আঐ গ্রাম থেকে সাতগাঁও বাজার হয়ে শ্রীমঙ্গল উপজেলা শহরে যাতায়াত করে। মেরামতের অভাবে এ গ্রামের রাস্তাটি থেকে সাতগাঁও বাজার পর্যন্ত প্রায় আড়াই কিলোমিটার রাস্তার বিভিন্ন স্থানে খানা খন্দের কারণে সাধারণ মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তাটির বেহাল অবস্থার কারণেও চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ায় প্রায় প্রতিদিন কোনো না কোনো যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। রাস্তাটিতে অসংখ্য খানা-খন্দে ভরে গেছে এবং উঠে গেছে ইটের সলিং। এছাড়া ছোট বড় মিলে রাস্তাটিতে প্রায় পাঁচ শতাধিক গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বিভিন্ন যানবাহন এসব গর্তে পড়ে দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। রাস্তা ভাঙ্গার কারণে দুর্ভোগে ভোগছেন হাজার হাজার মানুষ। বিকল্প সড়ক না থাকায় দুর্ভোগ সহ্য করে প্রতিদিন এ রাস্তায় চলাচল করছেন এ গ্রামের লোকজন। অতিদ্রুত রাস্তাটি পুনর্নিমাণ বা সংস্কার করার দাবি এলাকাবাসীর।

এলাকাবাসীরা জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও  জনপ্রতিনিধিদের জানানোর পরেও দীর্ঘ দিন অপেক্ষার পরেও কোন কাজ হচ্ছে না। সকলের দাবী অতি শ্রীঘ্রই যেন এই রাস্তাটির সংস্কার ও পূননির্মান করা হয়।

এ ব্যাপারে ভুনভীর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. চেরাগ আলী জানান এ রাস্তাটির সংস্কার এবং পাকা করার জন্য এল জি ই ডি বরাবরে অনেকবার দরখাস্ত দেয়া হয়েছে। কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই কাজ হবে বলে আশা করছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”