কমলগঞ্জের চার ইউনিয়নকে কেন মৌলভীবাজার-৪ আসনভুক্ত করা যাবে না? ৪ সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে নির্বাচন কমিশনকে উচ্চ আদালতের রুল

জুলাই ৩১, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৪ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার চারটি ইউনিয়নকে কেন ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল) আসনভুক্ত করা যাবে না ৪ সপ্তাহের মাঝে জবাব দিতে এই মর্মে উচ্চ আদালত নির্বাচন কমিশনের উপর রুল জারি করেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক ২৫ জুলাই করা রীট আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার উচ্চ আদালত এ রুল জারি করেন। রীট আবেদনকারী কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী (হাজী মুজিব) জানান, ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত কমলগঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন মৌলভীবাজার-৪ আসনভুক্ত ছিল। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন বিগত ৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর, আলীনগর, আদমপুর ও ইসলামপুর ইউনিয়নকে মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসভুক্ত করে। সম্প্রতি ৮৭টি আসনের সীমানা পূণ: নির্ধারণের জন্য নির্বাচন কমিশনে আপিল করা হয়। শুনানি শেষে নির্বাচন কমিশন ৫০ টি আসনের সীমানা পূণ: নির্ধারন করেন। নির্বাচন কমিশনের বিবেচনায় কমলগঞ্জ উপজেলার চারটি ইউনিয়ন শমশেরনগর, আলীনগর, আদমপুর ও ইসলামপুর মৌলভীবাজার-২ আসন ভুক্ত রয়ে যায়। এর প্রেক্ষিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মৌলভীবাজার-চার আসনের বিএনপির প্রার্থী হিসাবে তিনি (আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী) গত ২৫ জুলাই বারিষ্টার মোহাম্মদ জিসানের মাধ্যমে উচ্চ আদালতে রীট আবেদন করেন। বুধবার বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও এডিএম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত পুরাতন ২১ নং আদালতে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে আদালত নির্বাচন কমিশনকে চার সপ্তাহের সময় বেঁধে দিয়ে রুল জারি করেন কি কারণে কমলগঞ্জ উপজেলার এই চারটি ইউনিয়ন মৌলভীবাজার-৪ আসনভুক্ত হবে না তার জবাব দিতে।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার চারটি ইউনিয়নকে কেন ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল) আসনভুক্ত করা যাবে না ৪ সপ্তাহের মাঝে জবাব দিতে এই মর্মে উচ্চ আদালত নির্বাচন কমিশনের উপর রুল জারি করেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক ২৫ জুলাই করা রীট আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার উচ্চ আদালত এ রুল জারি করেন। রীট আবেদনকারী কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী (হাজী মুজিব) জানান, ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত কমলগঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন মৌলভীবাজার-৪ আসনভুক্ত ছিল। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন বিগত ৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর, আলীনগর, আদমপুর ও ইসলামপুর ইউনিয়নকে মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসভুক্ত করে। সম্প্রতি ৮৭টি আসনের সীমানা পূণ: নির্ধারণের জন্য নির্বাচন কমিশনে আপিল করা হয়। শুনানি শেষে নির্বাচন কমিশন ৫০ টি আসনের সীমানা পূণ: নির্ধারন করেন। নির্বাচন কমিশনের বিবেচনায় কমলগঞ্জ উপজেলার চারটি ইউনিয়ন শমশেরনগর, আলীনগর, আদমপুর ও ইসলামপুর মৌলভীবাজার-২ আসন ভুক্ত রয়ে যায়। এর প্রেক্ষিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মৌলভীবাজার-চার আসনের বিএনপির প্রার্থী হিসাবে তিনি (আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরী) গত ২৫ জুলাই বারিষ্টার মোহাম্মদ জিসানের মাধ্যমে উচ্চ আদালতে রীট আবেদন করেন। বুধবার বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও এডিএম আলতাফ হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত পুরাতন ২১ নং আদালতে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে আদালত নির্বাচন কমিশনকে চার সপ্তাহের সময় বেঁধে দিয়ে রুল জারি করেন কি কারণে কমলগঞ্জ উপজেলার এই চারটি ইউনিয়ন মৌলভীবাজার-৪ আসনভুক্ত হবে না তার জবাব দিতে। কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥

মন্তব্য করুন