মৌলভীবাজারের পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত

আগস্ট ৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৩ বার পঠিত

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শাহবন্দর ও কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার এলাকায় পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় এক মোটরসাইকেল আরোহী ও বাসের হেলপার নিহত হয়েছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৫ আগষ্ট সোমবার দুপুরে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শাহবন্দর এলাকায় সিলেটগামী একটি লোকাল বাস মৌলভীবাজারগামী মোটর সাইকেল আরোহী আব্দুর রকিবকে (৫৪) চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় আহতকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত আব্দুর রকিব কনকপুর ইউনিয়নের দুর্লভপুর গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে। মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। অপরদিকে কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার এলাকায় কুলাউড়া-মৌলভীবাজার মহাসড়কের একটি যাত্রীবাহী বাসের ছাদ থেকে পড়ে রিপন কুমার পাল (২৬) এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহত রিপন কুলাউড়া উপজেলার রাৎগাঁও এলাকার মুহিষজুড়ি গ্রামের বলাই পালের ছেলে। কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ হাসানুজ্জামান ঘটনার সততা নিশ্চিত করেছেন।
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শাহবন্দর ও কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার এলাকায় পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় এক মোটরসাইকেল আরোহী ও বাসের হেলপার নিহত হয়েছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৫ আগষ্ট সোমবার দুপুরে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শাহবন্দর এলাকায় সিলেটগামী একটি লোকাল বাস মৌলভীবাজারগামী মোটর সাইকেল আরোহী আব্দুর রকিবকে (৫৪) চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় আহতকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত আব্দুর রকিব কনকপুর ইউনিয়নের দুর্লভপুর গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে। মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। অপরদিকে কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার এলাকায় কুলাউড়া-মৌলভীবাজার মহাসড়কের একটি যাত্রীবাহী বাসের ছাদ থেকে পড়ে রিপন কুমার পাল (২৬) এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহত রিপন কুলাউড়া উপজেলার রাৎগাঁও এলাকার মুহিষজুড়ি গ্রামের বলাই পালের ছেলে। কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ হাসানুজ্জামান ঘটনার সততা নিশ্চিত করেছেন। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন