হাকালুকি হাওরের জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব: মোকাবেলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে

আগস্ট ৬, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৪ বার পঠিত

এশিয়ার সর্ববৃহৎ হাকালুকি হওরের জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। হাওরের কৃষি, মৎস্য, জলজ উদ্ভিদসহ সকল জীববৈচিত্র রক্ষায় কীটনাশক ও রাসায়নিক সার ব্যবহার বন্ধ করে জৈব সার ও সহনশীল বীজ ব্যবহার, বিল ও খাল খনন এবং হাওর উন্নয়নে বাঁধ নির্মান করতে হবে। মাছের প্রজনন মৌসুমে হাওর পারের মৎস্যজীবিদের বিকল্প পেশায় সম্পৃক্ত করতে হবে। পোনা মাছ আহরন বন্ধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে শক্তিশালী টিম গঠন করতে হবে। গত সোমবার পরিবেশ অধিদপ্তরের উদ্যোগে সিএনআরএস এর সহযোগিতায় বড়লেখায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে হাকালুকি হাওরে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও অভিযোজন কৌশল শীর্ষক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন। উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আশরাফুল আলম খানের সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধন করেন ইউএনও সৈয়দ মোহাম্মদ আমিনুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য ও মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের ক্লাইমেট চেঞ্জ এডাপটেশন এক্সপার্ট ড. এসএম রশিদ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিরুপন ও অভিযোজন কৌশল নির্ধারনের উপর আলোচনা করেন আব্দুল ওহাব আকন্দ। কর্মশালায় উন্মুক্ত আলোচনা করেন হাওরপারের সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নসিব আলী, বর্নি ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন, তালিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুনাম উদ্দিন, জুড়ী রেঞ্জ কর্মকর্তা শফি উদ্দিন, সহকারী মৎস্য অফিসার ইউসুফ আহমদ, সাংবাদিক আব্দুর রব ও কল্যান প্রসুন চম্পু, ইউপি মেম্বার বিপুল কান্তি দাস, উপ সহকারী কৃৃষি কর্মকর্তা চিত্ত রঞ্জন প্রমুখ।
এশিয়ার সর্ববৃহৎ হাকালুকি হওরের জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। হাওরের কৃষি, মৎস্য, জলজ উদ্ভিদসহ সকল জীববৈচিত্র রক্ষায় কীটনাশক ও রাসায়নিক সার ব্যবহার বন্ধ করে জৈব সার ও সহনশীল বীজ ব্যবহার, বিল ও খাল খনন এবং হাওর উন্নয়নে বাঁধ নির্মান করতে হবে। মাছের প্রজনন মৌসুমে হাওর পারের মৎস্যজীবিদের বিকল্প পেশায় সম্পৃক্ত করতে হবে। পোনা মাছ আহরন বন্ধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে শক্তিশালী টিম গঠন করতে হবে। গত সোমবার পরিবেশ অধিদপ্তরের উদ্যোগে সিএনআরএস এর সহযোগিতায় বড়লেখায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে হাকালুকি হাওরে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও অভিযোজন কৌশল শীর্ষক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন। উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আশরাফুল আলম খানের সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধন করেন ইউএনও সৈয়দ মোহাম্মদ আমিনুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য ও মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের ক্লাইমেট চেঞ্জ এডাপটেশন এক্সপার্ট ড. এসএম রশিদ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিরুপন ও অভিযোজন কৌশল নির্ধারনের উপর আলোচনা করেন আব্দুল ওহাব আকন্দ। কর্মশালায় উন্মুক্ত আলোচনা করেন হাওরপারের সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নসিব আলী, বর্নি ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন, তালিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুনাম উদ্দিন, জুড়ী রেঞ্জ কর্মকর্তা শফি উদ্দিন, সহকারী মৎস্য অফিসার ইউসুফ আহমদ, সাংবাদিক আব্দুর রব ও কল্যান প্রসুন চম্পু, ইউপি মেম্বার বিপুল কান্তি দাস, উপ সহকারী কৃৃষি কর্মকর্তা চিত্ত রঞ্জন প্রমুখ। বড়লেখা প্রতিনিধি:

মন্তব্য করুন