মাধবকু- জলপ্রপাতে নিরাপত্তা বেষ্টনী স্থাপন ও সড়ক সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ

আগস্ট ২০, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৪ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের মাধবকু- জলপ্রপাতের বিপদসীমায় পর্যটকের মৃত্যুরোধে নিরাপত্তা বেষ্টনী স্থাপন ও পর্যটকদের নিবির্ঘেœ যাতায়াতের লক্ষে সড়ক সংস্কারসহ বিভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন পালন করেছে বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন। ২০ আগষ্ট মঙ্গলবার বিকেলে মাধবকুন্ড জলপ্রপাত এলাকার প্রধান ফটকে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী এবাদুর রহমান চৌধুরী, প্রভাষক রফিক উদ্দিন, আজাদ আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। মানববন্ধনে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলো সংহতি প্রকাশ করে। উল্লেখ্য, মাধবকুন্ড জলপ্রপাত বাংলাদেশের অন্যতম আর্কষনীয় পর্যটন কেন্দ্র। প্রতিবছর সরকার প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় করে এই পর্যটন কেন্দ্র থেকে। কিন্তু জলপ্রপাত এলাকার নিরাপত্তা বেষ্টনী না থাকায় সাঁতার কাটতে নেমে প্রতিবছরই বেড়াতে আসা পর্যটকের কেউ না কেউ মারা যান। বেসরকারি এক হিসেবে গত এক যুগে এ পর্যন্ত ৩৩ জন পর্যটক মারা গেছেন।
মৌলভীবাজারের মাধবকু- জলপ্রপাতের বিপদসীমায় পর্যটকের মৃত্যুরোধে নিরাপত্তা বেষ্টনী স্থাপন ও পর্যটকদের নিবির্ঘেœ যাতায়াতের লক্ষে সড়ক সংস্কারসহ বিভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন পালন করেছে বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন। ২০ আগষ্ট মঙ্গলবার বিকেলে মাধবকুন্ড জলপ্রপাত এলাকার প্রধান ফটকে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী এবাদুর রহমান চৌধুরী, প্রভাষক রফিক উদ্দিন, আজাদ আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। মানববন্ধনে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলো সংহতি প্রকাশ করে। উল্লেখ্য, মাধবকুন্ড জলপ্রপাত বাংলাদেশের অন্যতম আর্কষনীয় পর্যটন কেন্দ্র। প্রতিবছর সরকার প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় করে এই পর্যটন কেন্দ্র থেকে। কিন্তু জলপ্রপাত এলাকার নিরাপত্তা বেষ্টনী না থাকায় সাঁতার কাটতে নেমে প্রতিবছরই বেড়াতে আসা পর্যটকের কেউ না কেউ মারা যান। বেসরকারি এক হিসেবে গত এক যুগে এ পর্যন্ত ৩৩ জন পর্যটক মারা গেছেন। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন