সদর উপজেলার উলুয়াইল গ্রামে দুই-পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০

আগস্ট ৩, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ২ বার পঠিত

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার একাটুনা ইউনিয়নের উলুয়াইল গ্রামে কথাকাটাকাটির জের ধরে দুইপক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উলুয়াইল গ্রামের লন্ডন প্রবাসী কুতুব মিয়া ও এরশাদ আলীর মধ্যে কথাকাটাকাটির জের ধরে রাতে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে তারা লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করে। এতে দুইপক্ষের ২০জন আহত হন। আহতরা হলেন জাকের আহমদ(২৮), সুমন আহমদ (২৭), ফজল মিয়া (৭৫), বাবুল মিয়া(৭১), আফিয়া বেগম (৬৫) শেখ বাদশা মিয়া (৭০), শাহ আলম দিপু (৩০), শেখ সুজিত(৩০), এরশাদ মিয়া (৭০),শেখ জমসেদ মিয়া (৩৫),শেখ নজরুল(৩৫),শেখ শামিম (৩৫), শেখ আলম মিয়া(৩০), বেলাল মিয়া(৩২), অদুদ মিয়া(৩৩), সুমন মিয়া(২৭)ও শেখ জায়েদ আলম(২৯)কে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে খবর পেয়ে মৌলভীবাজার থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার একাটুনা ইউনিয়নের উলুয়াইল গ্রামে কথাকাটাকাটির জের ধরে দুইপক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উলুয়াইল গ্রামের লন্ডন প্রবাসী কুতুব মিয়া ও এরশাদ আলীর মধ্যে কথাকাটাকাটির জের ধরে রাতে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে তারা লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করে। এতে দুইপক্ষের ২০জন আহত হন। আহতরা হলেন জাকের আহমদ(২৮), সুমন আহমদ (২৭), ফজল মিয়া (৭৫), বাবুল মিয়া(৭১), আফিয়া বেগম (৬৫) শেখ বাদশা মিয়া (৭০), শাহ আলম দিপু (৩০), শেখ সুজিত(৩০), এরশাদ মিয়া (৭০),শেখ জমসেদ মিয়া (৩৫),শেখ নজরুল(৩৫),শেখ শামিম (৩৫), শেখ আলম মিয়া(৩০), বেলাল মিয়া(৩২), অদুদ মিয়া(৩৩), সুমন মিয়া(২৭)ও শেখ জায়েদ আলম(২৯)কে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে খবর পেয়ে মৌলভীবাজার থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। স্টাফ রিপোর্টার॥

মন্তব্য করুন