মৌলভীবাজার শহরে জমে উঠেছে ইফতার বাজার

আগস্ট ১, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৩ বার পঠিত

রমজান মাসের শেষ দিকে মৌলভীবাজার শহরে ইফতার বাজার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। দুপুরের পর থেকে শহরের প্রতিটি সুনামধন্য হোটেল রেস্তোরাঁর পাশাপাশি অস্থায়ীভাবে গড়ে ওঠা ইফতার সামগ্রী বিক্রির দোকানগুলোয় ক্রেতারা ভীর করছেন। নিজেদের খাবার ও আত্মীয় স্বজনের বাড়ীতে পৌছে দিতে প্রতিদিন ছুটছেন এসব সুনামধন্য ইফতারের দোকানে। বিকেল তিনটার মধ্যে অনেক ইফতারের দোকানে কেনাকাঠা শেষ হয়ে যায়। তবে এসব নামীদামী হোটেল রেস্তোরাঁর পাশাপাশি অসংখ্য ইফতারির অস্থায়ী দোকানেও কেনাকাঠা হচ্ছে। ইফতার কেনাকাঠায় বিত্তবানদের তালিকায় রয়েছে হালিম, জিলেপী, বিরানী, খেজুর, রোস্ট, কাবাব সহ নানা ধরনের ইফতার। মধ্যবিত্তের তালিতায় জিলেপী, পেঁয়াজু, মুড়ি, বেগুনী ও পায়েছ। আর নি¤œবিত্তরা খিচুরি, পায়েছ, মুড়ি পেঁয়াজু ও ছোলা মিশিয়ে ইফতার সারছেন। এছাড়া, রমজানকে ঘিরে শহরের বিভিন্ন মহল্লায় গড়ে উঠেছে অস্থায়ী ইফতারির দোকান।
রমজান মাসের শেষ দিকে মৌলভীবাজার শহরে ইফতার বাজার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। দুপুরের পর থেকে শহরের প্রতিটি সুনামধন্য হোটেল রেস্তোরাঁর পাশাপাশি অস্থায়ীভাবে গড়ে ওঠা ইফতার সামগ্রী বিক্রির দোকানগুলোয় ক্রেতারা ভীর করছেন। নিজেদের খাবার ও আত্মীয় স্বজনের বাড়ীতে পৌছে দিতে প্রতিদিন ছুটছেন এসব সুনামধন্য ইফতারের দোকানে। বিকেল তিনটার মধ্যে অনেক ইফতারের দোকানে কেনাকাঠা শেষ হয়ে যায়। তবে এসব নামীদামী হোটেল রেস্তোরাঁর পাশাপাশি অসংখ্য ইফতারির অস্থায়ী দোকানেও কেনাকাঠা হচ্ছে। ইফতার কেনাকাঠায় বিত্তবানদের তালিকায় রয়েছে হালিম, জিলেপী, বিরানী, খেজুর, রোস্ট, কাবাব সহ নানা ধরনের ইফতার। মধ্যবিত্তের তালিতায় জিলেপী, পেঁয়াজু, মুড়ি, বেগুনী ও পায়েছ। আর নি¤œবিত্তরা খিচুরি, পায়েছ, মুড়ি পেঁয়াজু ও ছোলা মিশিয়ে ইফতার সারছেন। এছাড়া, রমজানকে ঘিরে শহরের বিভিন্ন মহল্লায় গড়ে উঠেছে অস্থায়ী ইফতারির দোকান। স্টাফ রিপোর্টার:

মন্তব্য করুন