বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠুর সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়

আগস্ট ২৫, ২০১৮, ২:৪৬ অপরাহ্ণ এই সংবাদটি ১৪৮ বার পঠিত

জুড়ী প্রতিনিধি॥ পবিত্র ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে মৌলভীবাজার-১ (জুড়ী ও বড়লেখা) আসনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠু সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

বুধবার ২২ আগস্ট সন্ধ্যা ৭ টায় নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠুর জুড়ী ক্লাব রোডের বাসায়  এ শুভেচ্ছা বিনিময় শুরু হয়। মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা উপলক্ষে এ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের পাশাপাশি জুড়ী ও বড়লেখা উপজেলার বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমীকদল, সেচ্ছাসেবকদল, কৃষকদল-সহ অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বড়লেখা উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল হাফিজ, জুড়ী উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ লিয়াকত আলী, বড়লেখা উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মুজিবুরর খসরু, জুড়ী উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক দেওয়ান আইনুল হক মিনু, বড়লেখা উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুশ শহিদ খাঁন, জুড়ী উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান আছকর, বড়লেখা পৌর বিএনপির সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম প্রমূখ।

উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠু বলেন, এক-এগারোর অবৈধ সরকার খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করেছিল। তারা তাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল। সেই সরকারের চেয়েও খারাপ বর্তমান ‘ফ্যাসিস্ট’ সরকার। বর্তমান সরকার মানুষের সব অধিকার দখল করেছে উল্লেখ করে বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠু বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে এ সরকারকে বাধ্য করতে হবে। এ দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সংসদ ভেঙে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করে নির্বাচন পরিচালনা করতে সরকারকে বাধ্য করতে হবে। তিনি বলেন, রাজনৈতিক দল হিসেবে আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা। গণতন্ত্রকে মুক্ত করার জন্য, দেশের মানুষের অধিকারকে পুনরায় ফিরিয়ে আনার জন্য আমাদের প্রাণ বাজি রেখে লড়াই করতে হবে। এ সংগ্রামে আমাদের জয়ী হতে হবে। নাসির উদ্দিন আহমেদ মিঠু আরো বলেন, আজকে এমন এক ঈদের মুহূর্তে আমরা একত্রিত হলাম, যখন আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এই ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচারী সরকারের চক্রান্তে কারারুদ্ধ রয়েছেন। তিনি শুধু একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নন, তিনি গণতান্ত্রিক আন্দোলনের কয়েকজন ব্যক্তির মধ্যে একজন। তিনি সারাজীবন গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”