বিজনেস সফটওয়্যার শোকেস রাজস্ব বাড়াতে অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার সহায়ক

মে ২৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৪ বার পঠিত

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশান অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবং আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের (আইবিপিসি) সহায়তায় বেসিস অডিটোরিয়ামে শনিবার ‘বিজনেস সফটওয়্যার শোকেস’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপী অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। দ্য ইন্সটিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টস, বাংলাদেশ (আইসিএবির) সভাপতি আবদুস সালাম, এফসিএ প্রধান অতিথি হয়ে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের (বিপিসি) কো-অর্ডিনেটর ড. খায়রুজ্জামান মজুমদার। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বেসিসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বেসিসের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম রাউলি এবং মাহবুব জামান। এ ছাড়াও ছিলেন বেসিসের কোষাধ্যক্ষ এবং বেসিস লোকাল মার্কেট স্ট্যান্ডিং কমিটির ডিরেক্টর-ইনচার্জ উত্তম কুমার পাল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আবদুস সালাম বলেন, দাতা সংস্থাগুলোর সহায়তায় সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পে অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহার শুরু করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। দেশের সব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এবং ছোট ও মাঝারী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত সব হিসাবরক্ষক যাতে অ্যকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেদের আন্তর্জাতিক মানের হিসাব রক্ষক হিসেবে গড়ে তুলতে পারে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবার আন্তরিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। বক্তারা বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসেও অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারে উৎসাহ, সরকারের রাজস্ব আদায়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সব পর্যায়ে অ্যকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে বেসিস থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ দেন। আইসিএবির সদস্যপ্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের বেসিসের এ আয়োজন পরিদর্শনের আহ্বান জানান। বিশেষ অতিথি ড. খায়রুজ্জামান মজুমদার বলেন, সফটওয়্যার ও আইটিইএস খাতে গত বছরে উল্লেখযোগ্য পরিশাণ রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ভবিষ্যতেও বেসিসের উদ্যোগে এ ধরনের বিভিন্ন খাতকে উদ্দেশ্য প্রদর্শনীর আয়োজনে কথা জানানো হয়। এসব আয়োজনে আইবিপিসির সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত, বিজনেস সফটওয়্যার প্রদর্শনীতে১৩টি বেসিস সদস্যপ্রতিষ্ঠান তাদের বিভিন্ন অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার প্রদর্শন করছে। এদের মধ্যে অ্যাডভান্স বাংলা সফটওয়্যার টেকনোলজি, অ্যাডভান্সড ইআরপি (বিডি), অ্যাপলিকেশন সলিউশন্স, বাংলাদেশ মাইক্রোটেকিনোলজি, বেস্ট বিজনেস বন্ড, সিএসএল সফটওয়্যার রিসোর্সেস, ড্যাফোডিল কম্পিউটারস, হাবিব ইন্টেলিজেন্ট সফটওয়্যার, আইবিসিএস-প্রাইম্যাক্স সফটওয়্যার (বিডি), মিডিয়িাসফট ডেটা সিস্টেমস, স্যাটকম আইটি, সাউথটেক লিমিটেড এবং দ্য ডেটাবিজ সফটওয়্যার অন্যতম। প্রথম দুদিনব্যাপী আয়োজন করার কথা থাকলেও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এবং অংশগ্রহণকারীদের অনুরোধে এ প্রদর্শনীর সময়সীমা একদিন বাড়ানো হয়েছে। এবারের প্রদর্শনী ২৭ মে অবধি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলবে।
বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশান অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবং আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের (আইবিপিসি) সহায়তায় বেসিস অডিটোরিয়ামে শনিবার ‘বিজনেস সফটওয়্যার শোকেস’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপী অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। দ্য ইন্সটিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টস, বাংলাদেশ (আইসিএবির) সভাপতি আবদুস সালাম, এফসিএ প্রধান অতিথি হয়ে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের (বিপিসি) কো-অর্ডিনেটর ড. খায়রুজ্জামান মজুমদার। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বেসিসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বেসিসের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম রাউলি এবং মাহবুব জামান। এ ছাড়াও ছিলেন বেসিসের কোষাধ্যক্ষ এবং বেসিস লোকাল মার্কেট স্ট্যান্ডিং কমিটির ডিরেক্টর-ইনচার্জ উত্তম কুমার পাল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আবদুস সালাম বলেন, দাতা সংস্থাগুলোর সহায়তায় সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পে অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহার শুরু করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। দেশের সব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এবং ছোট ও মাঝারী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত সব হিসাবরক্ষক যাতে অ্যকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেদের আন্তর্জাতিক মানের হিসাব রক্ষক হিসেবে গড়ে তুলতে পারে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবার আন্তরিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। বক্তারা বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসেও অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারে উৎসাহ, সরকারের রাজস্ব আদায়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সব পর্যায়ে অ্যকাউন্টিং সফটওয়্যার ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে বেসিস থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ দেন। আইসিএবির সদস্যপ্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের বেসিসের এ আয়োজন পরিদর্শনের আহ্বান জানান। বিশেষ অতিথি ড. খায়রুজ্জামান মজুমদার বলেন, সফটওয়্যার ও আইটিইএস খাতে গত বছরে উল্লেখযোগ্য পরিশাণ রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ভবিষ্যতেও বেসিসের উদ্যোগে এ ধরনের বিভিন্ন খাতকে উদ্দেশ্য প্রদর্শনীর আয়োজনে কথা জানানো হয়। এসব আয়োজনে আইবিপিসির সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত, বিজনেস সফটওয়্যার প্রদর্শনীতে১৩টি বেসিস সদস্যপ্রতিষ্ঠান তাদের বিভিন্ন অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার প্রদর্শন করছে। এদের মধ্যে অ্যাডভান্স বাংলা সফটওয়্যার টেকনোলজি, অ্যাডভান্সড ইআরপি (বিডি), অ্যাপলিকেশন সলিউশন্স, বাংলাদেশ মাইক্রোটেকিনোলজি, বেস্ট বিজনেস বন্ড, সিএসএল সফটওয়্যার রিসোর্সেস, ড্যাফোডিল কম্পিউটারস, হাবিব ইন্টেলিজেন্ট সফটওয়্যার, আইবিসিএস-প্রাইম্যাক্স সফটওয়্যার (বিডি), মিডিয়িাসফট ডেটা সিস্টেমস, স্যাটকম আইটি, সাউথটেক লিমিটেড এবং দ্য ডেটাবিজ সফটওয়্যার অন্যতম। প্রথম দুদিনব্যাপী আয়োজন করার কথা থাকলেও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এবং অংশগ্রহণকারীদের অনুরোধে এ প্রদর্শনীর সময়সীমা একদিন বাড়ানো হয়েছে। এবারের প্রদর্শনী ২৭ মে অবধি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলবে। সম্পাদনা: সাব্বিন হাসান, আইসিটি এডিটর

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন