অনুভূতি বুঝবে গুগল টুল

মে ২৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৫ বার পঠিত

ইনপুট-আউটপুট পদ্ধতিতে আসছে নতুন কিছু অনুসন্ধানীয় টুলস। সম্প্রতি গুগল ঘোষিত টুল ব্যবহারকারীর মানসিকতা অনুধাবন করতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সসিসকোতে গুগলের বার্ষিক উন্নয়ক সম্মেলনে নতুন এ পরিকল্পনার কথা জানান সার্চ গুরু। একই সময়ে নেওয়া প্রতিষ্ঠানের অন্য পদক্ষেপের কথাও বেরিয়ে আছে কার্যনির্বাহীদের থেকে। তারা বলেন প্রচন্ড ক্ষমতাশীল হয়ে উঠতে প্রাণপণ চেষ্টা চলছে, যেজন্য মানুষ-তুল্য ‘স্টার ট্রেক’ সার্চ ইঞ্জিন বাস্তবায়নের প্রয়াস গুগলের। নতুন টুলসের কার্যধারা নিয়ে জানানো হয়, যে মুহূর্তে মানুষ নির্দিষ্ট প্রশ্নাবলী সম্পর্কে গুগলে অনুসন্ধান করে এটা এখন ব্যবহারকারীদের অনুসরণ করা প্রশ্নের আগাম-তথ্য এবং সেগুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবে। উদাহরণ হিসেবে কোনো একটি নির্দিষ্ট দেশের জনসংখ্যার অনুসন্ধান করলে ব্যবহারকারী সেইসঙ্গে চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যাও পেয়ে যাবে। কারণ গুগল জ্ঞাত সেগুলো অধিক সচরাচর অনুসরণীয় প্রশ্ন। এটা হচ্ছে গুগলের জ্ঞান-পরকিল্পনার সম্প্রসারণ যেটা শুধুমাত্র প্রধান প্রধান শব্দ নয় ভাষার অর্থঘটিত অনুসন্ধান ফলাফল দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করবে।‘স্টার ট্রেক’ কম্পিউটার কেবলমাত্র সঠিক উত্তরই দিবেনা আরো জ্ঞানসম্পন্নও করবে। এছাড়া ব্যবহারকারীরা আগামীর চাওয়াগুলো প্রত্যাশা করতে পারবে অমিত সিংহাল গুগল সার্চের ভাইস প্রেসিডেন্ট সম্মেলনের আগে এক সাক্ষাতকালে কথাগুলো বলেন। এছাড়া ‘গুগল নাউ’ অনুসন্ধানের পূর্বেই ব্যবহারকারীকে রাস্তার যানজট এবং আবহওয়া সম্পর্কে তথ্য প্রেরণ করবে এবং তাদের মনের গভীরের চিন্তাভাবনা স্পর্শ করবে। আরও অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে বিনোদন এলার্টস যেমন ইউটিউবে নতুন ভিডিও মিউজিক। তথ্য মতে, শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দী অ্যাপলের শিরি‘কে লক্ষ্যে নিয়ে গুগলের এ পরিকল্পনা। এমনকি ব্যবহারকারীরা যদি গুগলকে পরবর্তী সময়ে যখন মুদির দোকানে অবস্থান করবে তখন কোনো পণ্য ক্রয়ের বিষয়টি স্বরণ করিয়ে দেওয়ার কথা বললে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তা করবে। গুগলের চাওয়া ফোন এবং কম্পিউটারে কথা বিনিময়ে যারা আগ্রহী তাদের মাধ্যমে অনুসন্ধানকে অধিক আলাপচারিতা পূর্ণ করে তোলা। উল্লেখ্য, ভয়েস সার্চ ইতিমধ্যে উভয় ডিভাইসেই ব্যবহারপযোগী হয়েছে। তবে গুগলের ঘোষণা অনুযায়ী তাদের নিজস্ব ক্রোম ব্রাউজারে ‘ওকে গুগল’ বলে অনুসন্ধানের মাধ্যমে কথাবার্তা বলা যাবে। যার প্রেক্ষিতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এখনকার প্রত্যাশা সেবাটি সত্যিই চালু হলে শীঘ্রই সবস্তরের ব্যবহারকারীরা উচ্চস্বর বিনিময় করতে পারবে। স্থান সম্পর্কিত তথ্য ব্যবহারের মাধ্যমেও প্রশ্নের উত্তর দিবে গুগল তাই নির্দিষ্ট স্থান থেকে যে কোনো স্থানের দুরত্বের বিষয়টিও জেনে নিতে পারবে গুগল ইউজাররা। গুগলের আরেকটি পরিকল্পনা ‘ব্যক্তিগতভাবে করা অনুসন্ধান’।বর্তমানে জিমেইল থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে ফলে ব্যবহারকারীরা অনুসন্ধানে ফলাফল পাবে। ইতিমধ্যে জিমেইল ব্যবহারকারীদের ফ্লাইট সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তাই ব্যবহারকারীরা এ মুহূর্তে গুগলে জিজ্ঞাসার মাধ্যমে তাদের গত বছরের কোনো ভ্রমনের ছবিও দেখার সুযোগ পাচ্ছে। কারণ গুগল সেগুলো গুগল-প্লাস থেকে খুঁজে বের করে প্রদর্শন করবে।
ইনপুট-আউটপুট পদ্ধতিতে আসছে নতুন কিছু অনুসন্ধানীয় টুলস। সম্প্রতি গুগল ঘোষিত টুল ব্যবহারকারীর মানসিকতা অনুধাবন করতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সসিসকোতে গুগলের বার্ষিক উন্নয়ক সম্মেলনে নতুন এ পরিকল্পনার কথা জানান সার্চ গুরু। একই সময়ে নেওয়া প্রতিষ্ঠানের অন্য পদক্ষেপের কথাও বেরিয়ে আছে কার্যনির্বাহীদের থেকে। তারা বলেন প্রচন্ড ক্ষমতাশীল হয়ে উঠতে প্রাণপণ চেষ্টা চলছে, যেজন্য মানুষ-তুল্য ‘স্টার ট্রেক’ সার্চ ইঞ্জিন বাস্তবায়নের প্রয়াস গুগলের। নতুন টুলসের কার্যধারা নিয়ে জানানো হয়, যে মুহূর্তে মানুষ নির্দিষ্ট প্রশ্নাবলী সম্পর্কে গুগলে অনুসন্ধান করে এটা এখন ব্যবহারকারীদের অনুসরণ করা প্রশ্নের আগাম-তথ্য এবং সেগুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবে। উদাহরণ হিসেবে কোনো একটি নির্দিষ্ট দেশের জনসংখ্যার অনুসন্ধান করলে ব্যবহারকারী সেইসঙ্গে চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যাও পেয়ে যাবে। কারণ গুগল জ্ঞাত সেগুলো অধিক সচরাচর অনুসরণীয় প্রশ্ন। এটা হচ্ছে গুগলের জ্ঞান-পরকিল্পনার সম্প্রসারণ যেটা শুধুমাত্র প্রধান প্রধান শব্দ নয় ভাষার অর্থঘটিত অনুসন্ধান ফলাফল দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করবে।‘স্টার ট্রেক’ কম্পিউটার কেবলমাত্র সঠিক উত্তরই দিবেনা আরো জ্ঞানসম্পন্নও করবে। এছাড়া ব্যবহারকারীরা আগামীর চাওয়াগুলো প্রত্যাশা করতে পারবে অমিত সিংহাল গুগল সার্চের ভাইস প্রেসিডেন্ট সম্মেলনের আগে এক সাক্ষাতকালে কথাগুলো বলেন। এছাড়া ‘গুগল নাউ’ অনুসন্ধানের পূর্বেই ব্যবহারকারীকে রাস্তার যানজট এবং আবহওয়া সম্পর্কে তথ্য প্রেরণ করবে এবং তাদের মনের গভীরের চিন্তাভাবনা স্পর্শ করবে। আরও অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে বিনোদন এলার্টস যেমন ইউটিউবে নতুন ভিডিও মিউজিক। তথ্য মতে, শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দী অ্যাপলের শিরি‘কে লক্ষ্যে নিয়ে গুগলের এ পরিকল্পনা। এমনকি ব্যবহারকারীরা যদি গুগলকে পরবর্তী সময়ে যখন মুদির দোকানে অবস্থান করবে তখন কোনো পণ্য ক্রয়ের বিষয়টি স্বরণ করিয়ে দেওয়ার কথা বললে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তা করবে। গুগলের চাওয়া ফোন এবং কম্পিউটারে কথা বিনিময়ে যারা আগ্রহী তাদের মাধ্যমে অনুসন্ধানকে অধিক আলাপচারিতা পূর্ণ করে তোলা। উল্লেখ্য, ভয়েস সার্চ ইতিমধ্যে উভয় ডিভাইসেই ব্যবহারপযোগী হয়েছে। তবে গুগলের ঘোষণা অনুযায়ী তাদের নিজস্ব ক্রোম ব্রাউজারে ‘ওকে গুগল’ বলে অনুসন্ধানের মাধ্যমে কথাবার্তা বলা যাবে। যার প্রেক্ষিতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এখনকার প্রত্যাশা সেবাটি সত্যিই চালু হলে শীঘ্রই সবস্তরের ব্যবহারকারীরা উচ্চস্বর বিনিময় করতে পারবে। স্থান সম্পর্কিত তথ্য ব্যবহারের মাধ্যমেও প্রশ্নের উত্তর দিবে গুগল তাই নির্দিষ্ট স্থান থেকে যে কোনো স্থানের দুরত্বের বিষয়টিও জেনে নিতে পারবে গুগল ইউজাররা। গুগলের আরেকটি পরিকল্পনা ‘ব্যক্তিগতভাবে করা অনুসন্ধান’।বর্তমানে জিমেইল থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে ফলে ব্যবহারকারীরা অনুসন্ধানে ফলাফল পাবে। ইতিমধ্যে জিমেইল ব্যবহারকারীদের ফ্লাইট সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তাই ব্যবহারকারীরা এ মুহূর্তে গুগলে জিজ্ঞাসার মাধ্যমে তাদের গত বছরের কোনো ভ্রমনের ছবিও দেখার সুযোগ পাচ্ছে। কারণ গুগল সেগুলো গুগল-প্লাস থেকে খুঁজে বের করে প্রদর্শন করবে। সিজারাজ জাহান মিমি

মন্তব্য করুন