মৌলভীবাজারে বিটিসিএলের ইন্টারনেট সংযোগ ৫৬ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর চালু

জুলাই ১৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৩ বার পঠিত

সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন কিন্তু বিটিসিএল চলছে এনালগ সিষ্টেমে। মৌলভীবাজারসহ সিলেট বিভাগের সাথে গত ১৩ জুলাই শনিবার সকাল ৮টা থেকে টানা ৫৬ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় চালু হয় বিটিসিএল এর ইন্টারনেট সংযোগ। এ দীর্ঘ সময় ফাইবার অপটিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় গ্রাহকরা ইন্টারনেট ব্রাউজিং সহ গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে পারেনেনি। এ ব্যপারে সোমবার দুপুর ২টায় মগবাজারস্থ বিটিসিএলের ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার শফিক হোসেন সিদ্দিক ও রেজাউর রহমানের সাথে ফোনে কথা বললে তারা জানান বি-বাড়িয়া জেলার একটি স্থানে ফাইবার অপটিক সংযোগ বিছিন্ন হওয়ার খবর পেয়েছেন। সেই খবরে গত কয়েক দিন ধরে কাজ করেও সংযোগ স্বাভাবিক করা যাচ্ছে না। তিনি আরো জানান হরতালের কারনে কাজ করা যাচ্ছে না। তবে আগামী দু’এক দিনের মধ্যে ফাইভার মেরামত করা সম্ভব হতে পারে। পরে সোমবার বিকেল ৪টায় ফাইভার সংযোগ স্বাভাবিক হয়। গ্রাহকরা সমস্যা সমাধানে মৌলভীবাজার ও সিলেট বিটিসিএল এর কর্মকর্তাদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগযোগ করার চেষ্টা করলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি। একটি সূত্র জানায় এ অঞ্চলে নানা অজুহাতে প্রায় সময় ফাইভার সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। এর কারণ হিসাবে জানা যায় বেসরকারী ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান আইআইজি ও বিটিসিএল কর্মকর্তার যোগসাজসে প্রায় সময় সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। অপর দিকে একাধিক ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার অভিযোগ করেন সংযোগ সংক্রান্ত ক্রটির বিষয় জানতে চাইলে মগবাজারস্থ বিটিসিএল এর দ্বায়িত্বশীল কাউকে পাওয়া যায়না। যাদেরকে পাওয়া যায় তারা সঠিক উত্তর দিতে পারেননা। এ ছাড়া প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে রোবাবার সকাল ১০টার মধ্যে বিটিসিএলের কর্মকর্ত কিংবা কর্মচারীদের সাথে গ্রাহক সেবা সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে কাউকে পাওয়া যায়না।
সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন কিন্তু বিটিসিএল চলছে এনালগ সিষ্টেমে। মৌলভীবাজারসহ সিলেট বিভাগের সাথে গত ১৩ জুলাই শনিবার সকাল ৮টা থেকে টানা ৫৬ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টায় চালু হয় বিটিসিএল এর ইন্টারনেট সংযোগ। এ দীর্ঘ সময় ফাইবার অপটিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় গ্রাহকরা ইন্টারনেট ব্রাউজিং সহ গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে পারেনেনি। এ ব্যপারে সোমবার দুপুর ২টায় মগবাজারস্থ বিটিসিএলের ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার শফিক হোসেন সিদ্দিক ও রেজাউর রহমানের সাথে ফোনে কথা বললে তারা জানান বি-বাড়িয়া জেলার একটি স্থানে ফাইবার অপটিক সংযোগ বিছিন্ন হওয়ার খবর পেয়েছেন। সেই খবরে গত কয়েক দিন ধরে কাজ করেও সংযোগ স্বাভাবিক করা যাচ্ছে না। তিনি আরো জানান হরতালের কারনে কাজ করা যাচ্ছে না। তবে আগামী দু’এক দিনের মধ্যে ফাইভার মেরামত করা সম্ভব হতে পারে। পরে সোমবার বিকেল ৪টায় ফাইভার সংযোগ স্বাভাবিক হয়। গ্রাহকরা সমস্যা সমাধানে মৌলভীবাজার ও সিলেট বিটিসিএল এর কর্মকর্তাদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগযোগ করার চেষ্টা করলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি। একটি সূত্র জানায় এ অঞ্চলে নানা অজুহাতে প্রায় সময় ফাইভার সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। এর কারণ হিসাবে জানা যায় বেসরকারী ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান আইআইজি ও বিটিসিএল কর্মকর্তার যোগসাজসে প্রায় সময় সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। অপর দিকে একাধিক ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার অভিযোগ করেন সংযোগ সংক্রান্ত ক্রটির বিষয় জানতে চাইলে মগবাজারস্থ বিটিসিএল এর দ্বায়িত্বশীল কাউকে পাওয়া যায়না। যাদেরকে পাওয়া যায় তারা সঠিক উত্তর দিতে পারেননা। এ ছাড়া প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার বিকেলের পর থেকে রোবাবার সকাল ১০টার মধ্যে বিটিসিএলের কর্মকর্ত কিংবা কর্মচারীদের সাথে গ্রাহক সেবা সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে কাউকে পাওয়া যায়না। ষ্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন