কবরস্থানে বৃক্ষরোপন নিয়ে বিরোধ ঃ কমলগঞ্জে প্রতিপক্ষের হুমকিতে হৃদরোগে বৃদ্ধের মৃত্যূ

জুলাই ১৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ২ বার পঠিত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার ইউনিয়নে গোবিন্দপুর গ্রামে কবরস্থানে বৃক্ষ রোপন নিয়ে সৃষ্ট বিরোধে প্রতিপক্ষের হুমকিতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ১৫ জুলাই সোমবার বেলা ৩টায় এ ঘটনাটি ঘটে। তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ৪ জনকে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, গোবিন্দপুর গ্রামে কবরস্থানে গাছের চারা রোপন করতে চেয়েছিলেন বৃদ্ধ সিফত উল্যা (৬৫)। কবরস্থানের জমি নিজের দাবী করে এ গ্রামের প্রতিপক্ষ সেলিম মিয়া গাছের চারা রোপনে বাধা দিলে উভয় পক্ষের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরে সেলিম মিয়া বৃদ্ধ সিফত উল্যার ঘরে গিয়ে দা দিয়ে হুমকি দিলে কিছুক্ষন পর বৃদ্ধ সিফত উল্যা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান। বৃদ্ধের পরিবার সদস্যরা দ্রুত তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে (বৃদ্ধকে) মৃত ঘোষনা করেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য আসাদুজ্জামান চৌধুরী জানান, জায়গা জমি নিয়ে সিফাত উল্যার সাথে সেলিম মিয়ার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। কথাকাটির এক পর্যায়ে সেলিম মিয়ার লাঠির আঘাতে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে বলে লোকজন আমাকে জানায়। পতনউষার ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মৃত বৃদ্ধ খুবই সহজ সরল প্রকৃতির লোক ছিলেন। আর প্রতিপক্ষ সেলিম মিয়া একজন ডাকাত। বৃদ্ধের পরিবার সদস্যরা এ ঘটনার জন্য আইনী কোন সহযোগিতা চাইলে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সহায়তা প্রদান করা হবে বলে ইউপি চেয়ারম্যান জানান। কমলগঞ্জ থানার ওসি নীহার রঞ্জন নাথ সোমবার সন্ধ্যায় জানান, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মঞ্জুরুল আলম বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামী করে সোমবার বিকেলে কমলগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদও হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। তবে সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার ইউনিয়নে গোবিন্দপুর গ্রামে কবরস্থানে বৃক্ষ রোপন নিয়ে সৃষ্ট বিরোধে প্রতিপক্ষের হুমকিতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ১৫ জুলাই সোমবার বেলা ৩টায় এ ঘটনাটি ঘটে। তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ৪ জনকে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, গোবিন্দপুর গ্রামে কবরস্থানে গাছের চারা রোপন করতে চেয়েছিলেন বৃদ্ধ সিফত উল্যা (৬৫)। কবরস্থানের জমি নিজের দাবী করে এ গ্রামের প্রতিপক্ষ সেলিম মিয়া গাছের চারা রোপনে বাধা দিলে উভয় পক্ষের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরে সেলিম মিয়া বৃদ্ধ সিফত উল্যার ঘরে গিয়ে দা দিয়ে হুমকি দিলে কিছুক্ষন পর বৃদ্ধ সিফত উল্যা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান। বৃদ্ধের পরিবার সদস্যরা দ্রুত তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে (বৃদ্ধকে) মৃত ঘোষনা করেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য আসাদুজ্জামান চৌধুরী জানান, জায়গা জমি নিয়ে সিফাত উল্যার সাথে সেলিম মিয়ার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। কথাকাটির এক পর্যায়ে সেলিম মিয়ার লাঠির আঘাতে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে বলে লোকজন আমাকে জানায়। পতনউষার ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মৃত বৃদ্ধ খুবই সহজ সরল প্রকৃতির লোক ছিলেন। আর প্রতিপক্ষ সেলিম মিয়া একজন ডাকাত। বৃদ্ধের পরিবার সদস্যরা এ ঘটনার জন্য আইনী কোন সহযোগিতা চাইলে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সহায়তা প্রদান করা হবে বলে ইউপি চেয়ারম্যান জানান। কমলগঞ্জ থানার ওসি নীহার রঞ্জন নাথ সোমবার সন্ধ্যায় জানান, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মঞ্জুরুল আলম বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামী করে সোমবার বিকেলে কমলগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদও হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। তবে সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি। কমলগঞ্জ প্রতিনিধি॥

মন্তব্য করুন