বৃহস্পতিবার জামাতের ডাকা সকাল সন্ধ্যা হরতাল পালন

জুলাই ১৮, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ৬ বার পঠিত

সরকার তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ ঘোষণার মাধ্যমে তাকে হত্যা করার সরকারি ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে জামায়াতের ডাকা দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ১৮ জুলাই মৌলভীবাজারে শান্তিপূর্নভাবে চলছে। টানা চতুর্থ দিনের মত জামায়াতের ডাকা কর্মসূচি সফল ভাবে পালিত হচ্ছে। হরতাল চলার সময় জামায়াত ও ছাত্রশিবিরের কর্মীরা শহরের জুগিডর, শমসেরনগর সড়ক ও শ্রীমঙ্গল সড়কে পিকেটিং করে। জামায়াত কর্মীরা মৌলভীবাজার-সিলেট মহাসড়ক অবরুধ করে। নেতাকর্মীরা শহরের বিভিন্ন গুরুত্ব পূর্ণ পয়েন্টে অবস্থান নেয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জামায়াতে ইসলামী মৌলভীবাজার জেলা সেক্রেটারী ইঞ্জিনিয়ার এম শাহেদ আলী, পৌর আমীর ইয়ামীর আলী, সদর উপজেলা আমীর আলাউদ্দিন শাহ, ছাত্রশিবির মৌলভীবাজার শহর সভাপতি হাফেজ তাজুল ইসলাম, জেলা সভাপতি দেলোওয়ার হোসেন, শহর সেক্রেটারী ফখরুল ইসলাম, জেলা সেক্রেটারী আল মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক আবু নোমান মুয়িন, স্কুল কার্যক্রম সম্পাদক ইকবাল আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। অফিস-আদালত, স্কুল কলেজসহ শহরের অধিকাংশ দোকান পাট বন্ধ ছিল। ছোট ছোট যানবাহন শহরের ভিতরে চলাচল করলেও দুরপাল্লার কোন যান ছেড়ে যায়নি। আদালতের কার্যক্রম ছিল বন্ধ।
সরকার তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ ঘোষণার মাধ্যমে তাকে হত্যা করার সরকারি ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে জামায়াতের ডাকা দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ১৮ জুলাই মৌলভীবাজারে শান্তিপূর্নভাবে চলছে। টানা চতুর্থ দিনের মত জামায়াতের ডাকা কর্মসূচি সফল ভাবে পালিত হচ্ছে। হরতাল চলার সময় জামায়াত ও ছাত্রশিবিরের কর্মীরা শহরের জুগিডর, শমসেরনগর সড়ক ও শ্রীমঙ্গল সড়কে পিকেটিং করে। জামায়াত কর্মীরা মৌলভীবাজার-সিলেট মহাসড়ক অবরুধ করে। নেতাকর্মীরা শহরের বিভিন্ন গুরুত্ব পূর্ণ পয়েন্টে অবস্থান নেয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জামায়াতে ইসলামী মৌলভীবাজার জেলা সেক্রেটারী ইঞ্জিনিয়ার এম শাহেদ আলী, পৌর আমীর ইয়ামীর আলী, সদর উপজেলা আমীর আলাউদ্দিন শাহ, ছাত্রশিবির মৌলভীবাজার শহর সভাপতি হাফেজ তাজুল ইসলাম, জেলা সভাপতি দেলোওয়ার হোসেন, শহর সেক্রেটারী ফখরুল ইসলাম, জেলা সেক্রেটারী আল মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক আবু নোমান মুয়িন, স্কুল কার্যক্রম সম্পাদক ইকবাল আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। অফিস-আদালত, স্কুল কলেজসহ শহরের অধিকাংশ দোকান পাট বন্ধ ছিল। ছোট ছোট যানবাহন শহরের ভিতরে চলাচল করলেও দুরপাল্লার কোন যান ছেড়ে যায়নি। আদালতের কার্যক্রম ছিল বন্ধ। স্টাফ রিপোর্টার॥

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের “আপনার প্রিয় শেয়ার বাটনটিতে ক্লিক করুন”

মন্তব্য করুন