সরকারের মন্ত্রী, এমপিরা তত্বাবধায়ক সরকার চায় : শুধু শেখ হাসিনা চান —–এম নাসের রহমান

জুলাই ২৫, ২০১৩, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ এই সংবাদটি ২ বার পঠিত

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান বলেছেন, দেশের ৮০ ভাগ মানুষ এবং বর্তমান সরকারের সকল মন্ত্রী, এমপিরা তত্বাবধায়ক সরকার চায়, শুধু প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও একটি বিদেশী রাষ্ট্র চান না তত্বাবধায়ক সরকার। দুর্নীতিবাজ আওয়ামীলীগ সরকারের নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে বর্তমানে লাইফ সাপোর্টে বেঁচে রয়েছে। সদ্য অনুষ্ঠিত পাঁচ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে সরকারকে জনগণ হলুদ কার্ড দেখিয়েছে। আর আগামী সংসদ নির্বাচনে বাংলার জনগন তাদেরকে লাল কার্ড দেখাতে প্রস্তুুত রয়েছে। প্রয়াত অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের বড় ছেলে নাসের রহমান নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সকল ভেদাভেদ ভূলে ঈদের পর তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। তিনি আরও বলেন, বিগত সংসদ নির্বাচনের আগে শেখ হাসিনা বাংলার জনগণকে ধোকা দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরি করার কথা বলেছিল। কিন্তু দেশে উন্নয়নের পরিবর্তে বেড়েছে বেকারত্ব, বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর সীমাহীন অত্যাচার, দমন-পীড়ন আর সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের লুটপাট। তিনি ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার স্থানীয় একটি রেষ্টুরেন্টে জেলা বিএনপির আয়োজনে সাংবাদিকদের সম্মানে এক ইফতার মাহফিলে সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এসব কথা বলেন। ইফতারের আগে জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এ সময় জেলায় কর্মরত সকল প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বিএনপি নেতা এম ইদ্রিস আলীর পরিচালনায় ইফতার পূর্ব আলোচনা সভায় অন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ মাহবুব, সাধারন সম্পাদক এস এম উমেদ আলী, মৌলভীবাজার জেলা বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট মুজিবুর রহমান মুজিব, বিএনপি নেতা এডভোকেট সুনিল কুমার দাশ, মোঃ ইউছুফ আলী, এম এ মুকিত প্রমূখ। এছাড়াও স্থানীয় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমান বলেছেন, দেশের ৮০ ভাগ মানুষ এবং বর্তমান সরকারের সকল মন্ত্রী, এমপিরা তত্বাবধায়ক সরকার চায়, শুধু প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও একটি বিদেশী রাষ্ট্র চান না তত্বাবধায়ক সরকার। দুর্নীতিবাজ আওয়ামীলীগ সরকারের নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে বর্তমানে লাইফ সাপোর্টে বেঁচে রয়েছে। সদ্য অনুষ্ঠিত পাঁচ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে সরকারকে জনগণ হলুদ কার্ড দেখিয়েছে। আর আগামী সংসদ নির্বাচনে বাংলার জনগন তাদেরকে লাল কার্ড দেখাতে প্রস্তুুত রয়েছে। প্রয়াত অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের বড় ছেলে নাসের রহমান নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সকল ভেদাভেদ ভূলে ঈদের পর তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। তিনি আরও বলেন, বিগত সংসদ নির্বাচনের আগে শেখ হাসিনা বাংলার জনগণকে ধোকা দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরি করার কথা বলেছিল। কিন্তু দেশে উন্নয়নের পরিবর্তে বেড়েছে বেকারত্ব, বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর সীমাহীন অত্যাচার, দমন-পীড়ন আর সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের লুটপাট। তিনি ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার স্থানীয় একটি রেষ্টুরেন্টে জেলা বিএনপির আয়োজনে সাংবাদিকদের সম্মানে এক ইফতার মাহফিলে সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এসব কথা বলেন। ইফতারের আগে জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এ সময় জেলায় কর্মরত সকল প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বিএনপি নেতা এম ইদ্রিস আলীর পরিচালনায় ইফতার পূর্ব আলোচনা সভায় অন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ মাহবুব, সাধারন সম্পাদক এস এম উমেদ আলী, মৌলভীবাজার জেলা বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট মুজিবুর রহমান মুজিব, বিএনপি নেতা এডভোকেট সুনিল কুমার দাশ, মোঃ ইউছুফ আলী, এম এ মুকিত প্রমূখ। এছাড়াও স্থানীয় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। স্টাফ রিপোর্টার॥

মন্তব্য করুন